sliderস্থানীয়

সিলেটে চিনির সাথে আসছে মদসহ আরও ভারতীয় পণ্য

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটে চোরাই চিনির বিরুদ্ধে মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। চিনির ‘লাইনে’ ডিবি পুলিশের পৃথক দুটি অভিযানে চোরাইপথে আনা ২৯ লাখ ২৮ হাজার টাকার ভারতীয় পণ্য ও ২১ বোতল বিদেশি মদ জব্দ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এসএমপির মিডিয়া সেল থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এসএমপির এডিসি (মিডিয়া) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম পৃথক দুটি অভিযানের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপ-কমিশনারের (ডিবি) সার্বিক দিকনির্দেশনায় বুধবার (২৭ জুন) গোয়েন্দা বিভাগের টিম-১ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসএমপি কোতোয়ালি মডেল থানাধীন কুমারপাড়া পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করে মো. মঈন উদ্দিন (২৫) নামের এক যুবককে আটক করে। পরে তার হেফাজতে থাকা ২৯ লাখ ২৮ হাজার ২০০ টাকার চোরাই পণ্য জব্দ করা হয়। এসব পণ্য পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ডিআই পিকআপও জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় বুধবার রাতে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়। আটক যুবককে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, বুধবার রাতে চোরাই চিনির লাইন থেকে এয়ারপোর্ট থানা-পুলিশ পৃথক আরেক অভিযানে ২১ বোতল বিদেশি মদসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এয়ারপোর্ট থানাধীন বড়শালা এলাকার ফরিদাবাদ আবাসিক এলাকার প্রবেশমুখে কোম্পানীগঞ্জ থেকে সিলেটগামী সড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশিকালে মাজাহারুল ইসলাম (৩০) ও শাহীন ইসলাম আল আমিন (২২) নামক দুই যুবককে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে ২১ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়। সীমান্ত এলাকা থেকে এসব মদ বিক্রির জন্য তারা নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ ঘটনায় এয়ারপোর্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। মামলায় আটক দুই যুবককে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button