sliderস্থানীয়

নৌকা মনোনয়নের প্রত্যাশায় এডিএম শহিদুলের গণসংযোগ অব্যাহত

মুহাম্মদ আবু হেলাল, শেরপুর প্রতিনিধি : আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে শেরপুর-৩ (ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদী) আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী এডিএম শহিদুল ইসলামের গণসংযোগ ও পথসভা অব্যাহত রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ৯সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেলে ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের বাকাকুড়া বাজারে শতাধিক দলীয় নেতাকর্মি নিয়ে গণসংযোগ ও পথ সভা করেন। এসময় তিনি বাজারের সর্বস্তরের ব্যবসায়ী ও পথচারিদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন এবং দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় দোয়া কামনা করেন।

গণসংযোগ শেষে বাকাকুড়া বাজারের তিনরাস্তা মোড়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা পুলিশিং কমিটির সভাপতি ও কাংশা ইউনিয়ন আ”লীগের সভাপতি আনোয়ার উল্লাহ’র সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী এডিএম শহিদুল ইসলাম। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, “আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষক পরিবারের সন্তান। শ্রীবরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, ৩ বারের ইউপি চেয়ারম্যান ও বর্তমানে শ্রীবরদী উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে গত ১৮টি বছর জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করে রেখেছি। আমি মুজিব পাগল একজন সাধারণ কর্মি হিসেবে আজ আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার সুযোগ্য কন্যা গনতন্ত্রের মানসকন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন, স্মাট বাংলাদেশ বিনির্মান ও ভিশণ ৪১বাস্তবায়নের লক্ষে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি শেরপুর-৩ (ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদী) আসনে দলীয় মনোনয়ের জন্য আপনাদের কাছে দোয়া ও সমর্থন চাই। কেননা আমি মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষক পরিবারের সন্তান। আমি কৃষকের ব্যথা বুঝি, আমি ত্যাগী নেতাকর্মিদের ব্যথা বুঝি। তাই আমি যদি আপনাদের
দোয়া ও সমর্থনে দলীয় প্রতীক পেয়ে মহান জাতীয় সংসদে যদি যেতে পারি, তাহলে আমি ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদীবাসীদের জন্যে অঞ্চল ভিত্তিক সকল প্রকার উন্নয়ন করবো- কথা দিলাম। এসময় তিনি আরো বলেন, “দল যাকেই মনোনয়ন দেবে, আমি এবং আমরা সকলেই একত্রিত হয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট সংগ্রহ করে সেই প্রার্থীকে বিজয়ী করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে এ আসন উপহার দিবো ইনশাল্লাহ”।

এসময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসংঙ্গত উল্লেখ্য যে, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি দলীয় মনোনয়ন চেয়ে ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদী উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন, ১টি পৌরসভা ও ১শত ৫৩টি ওয়ার্ডে তিনি চষে বেড়িয়েছেন। এবছরেও তিনি তার এ প্রচারণা দিন রাত চালিয়ে যাচ্ছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button