sliderস্থানীয়

স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়ায় বেকায়দায় বর্তমান আলীগ এমপি নুর মোহাম্মদ

রতন ঘোষ, কটিয়াদী প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জ- ২ (কটিয়াদ-পাকুন্দিয়া) সংসদীয় আসনে নৌকা প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের গুজব ও ষড়যন্ত্র ছড়াচ্ছে বর্তমান আওয়ামী লীগের এমপি পুলিশের সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ। তিনি বিএনপি থেকে বহিস্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী মেজর অবঃ আখতারুজ্জামান রঞ্জনকে (ট্রাক প্রতীক) সমর্থন দিয়েছেন। এ ব্যাপারে নুর মোহাম্মদ বলেন, অন্যান্য প্রার্থীর চেয়ে মেজর অবঃ আক্তারুজ্জামানকে আমার যোগ্য মনে হয়েছে, তাই আমি উনাকে সমথর্ন দিয়েছি এবং কর্মীদের কাজ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। নূর মোহাম্মদের সমর্থন পেয়ে মেজর আক্তার বলেন, আমি উনার প্রতি খুব কৃতজ্ঞ এবং ধন্যবাদ জানাচ্ছি । এ ঘটনায় এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মেজর আক্তারের লোকজন মাঠে ময়দানে এই বলে গুজব ছড়াচ্ছে যে, এই আসন সরকার তাদেরকে দিয়ে দিবে। অপরদিকে আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি বর্তমানে স্বতন্ত্র প্রার্থী এডভোকেট সোহরাব উদ্দিনের (ঈগল প্রতীক) লোকজন বিজয়ের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তিনি তার লোকজনকে নিয়ে গ্রাম গঞ্জে চষে বেড়াচ্ছেন। তিনি এ ব্যাপারে বলেন, মেজর আক্তার কে নূর মোহাম্মদ সমর্থন দিয়ে ভালোই করেছেন। সম্প্রতি পাকুন্দিয়ায় তিনি এক পথ সভায় বলেন, বর্তমান এমপি নূর মোহাম্মদ, আমার ঈগল প্রতীক কর্মী সমর্থকদের তাদের মোবাইল ফোনে বিভিন্ন ধরনের ভয় ভীতি প্রদর্শন করে নির্বাচন বানচাল করার চেষ্টা করছে এবং তারা যদি ট্রাক প্রতীকে ভোট না দেয় তাহলে গুলি করা হবে বলেও ভয় ভীতি প্রদর্শন করছে। গতকালপাকুন্দিয়া উপজেলায় পথসভায়জনগণের উদ্দেশ্যে বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত বর্তমান এমপি নূর মোহাম্মদের সমর্থিত ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মেজর (অব:)আখতারুজ্জামান বলেন তিনি এবার ঘরে ঘুমিয়ে থাকবেন এবং জনগণ তাকে ভোট দিয়ে পাস করাবে।
অপরদিকে প্রচার প্রচারণায় ও গণ সংযোগে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন নৌকার মাঝি গোয়েন্দা বিভাগের সাবেক অতিরিক্ত ডিআইজি আব্দুল কাহার আকন্দ। বাংলাদেশের বহুল আলোচিত বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাহার আকন্দ বিজয়ের ব্যাপারে তিনি ১০০ ভাগ আশাবাদী। চলমান গুজবের প্রেক্ষাপটে তিনি গত ২২ শে ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে যান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে আশ্বস্ত করেন যে, আগামী ৭ই জানুয়ারি ২০২৪ এর দ্বাদশ সংসদীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ। প্রধানমন্ত্রী এসব গুজবে কান না দিয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য কটিয়াদী ও পাকুন্দিয়াবাসীকে আহ্বান জানান। গত ২৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার তেজগাঁওয়ে অবস্থিত ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে কিশোরগঞ্জ জেলার নির্বাচনী জনসভা (ভার্চুয়ালি) বক্তব্যে কিশোরগঞ্জ -২ (কটিয়াদী -পাকুন্দিয়া) সংসদীয় আসনে বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক ডিআইজি আব্দুল কাহার আকন্দকে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য ভোট চাইলেন দেশরত্ন ও জননেত্রী শেখ হাসিনা । তারপর থেকে পাল্টে যেতে থাকে নৌকা প্রার্থী আব্দুল কাহার আকন্দের জন সমর্থন । প্রতিনিয়তই যেন সমর্থন বারছে নৌকা প্রতীকের। নৌকার মাঝি আব্দুল কাহার আকন্দ বলেন বর্তমান এমপি নূর মোহাম্মদ, মেজর আক্তার কে সমর্থন দেওয়া অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জাস্কর বিষয়। তবে এতে তিনি বিন্দুমাত্র বিচলিত নন । আব্দুল কাহার আকন্দ আরো বলেন, কটিয়াদী ও পাকুন্দিয়া বাসি উন্নয়নের মার্কা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার নৌকাতে ভোট দিয়ে আমাকে জয়যুক্ত করবেন ইনশাল্লাহ।
কটিয়াদি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন মিলন নুর মোহাম্মদ বিষয়ে বলেন, তার এই ভুমিকায় কটিয়াদী উপজেলা আওয়ামী লীগ মুক্ত । এখন থেকে দল আরো সংগঠিত হবে এবং নৌকা নিশ্চিত বিজয় অর্জন করবে। কটিয়াদী ডিগ্রী কলেজের সাবেক ভিপি দুলাল বর্মন বলেন, মূল দল থেকে উল্টো স্রোতে যাওয়া, এটি উনার সম্পূর্ণ নিজস্ব ব্যাপার। তবে এতে দলের জন্য ভালই হবে।
বীর মুক্তিযোদ্ধা জামির হোসেন বলেন, এই ঘটনার মাধ্যমে সাবেক আইজিপি নুর মোহাম্মদ তার আসল রাজনৈতিক পরিচয় ফুটিয়ে তুলেছেন। ডাক্তার হাবিবুর রহমান বলেন চারিদিকে নৌকার যে জোয়ার বইছে, এতে সাবেক এমপির এই সমর্থন কোন কাজে আসবে না।
এই আসন থেকে অন্যান্য প্রার্থীরা হচ্ছেন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ফ্রন্ট পার্টির মোঃ বিলাল হোসেন, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আলেয়া বেগম, ও গণফ্রন্ট পার্টির মীর আবু তৈয়ব । তবে এদের কোন প্রচার প্রচারণায় তৎপরতা চোখে পড়েনি।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button