sliderস্থানীয়

সুনামগঞ্জের চারাগাঁও সীমান্তে ২৭ টন অবৈধ কয়লাসহ আটক ২

আমির হোসেন, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার চারাগাঁও পৃথক অভিযান চালিয়ে ২৭ মেঃটন অবৈধ কয়লাসহ ২জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

গতকাল (২৪ জানুয়ারি মঙ্গলবার) উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের চারাগাঁও সীমান্তে তাহিরপুর থানা পুলিশ দিনব্যাপী পৃথক অভিযান চালিয়ে ২৭ মেঃ টন অবৈধ কয়লা সহ অরুন দাস (৪৭) ও সালাম মিয়া (১৮) নামের দুই জনকে আটক করে ।

আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারী) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার ওসি সৈয়দ ইফতেখার হোসেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- জেলার তাহিরপুর উপজেলার চারাগাঁও সীমান্তের লালঘাট, বাঁশতলা, চারাগাঁও এলসি পয়েন্ট, জঙ্গলবাড়ি ও কলাগাঁও এলাকা দিয়ে সোর্স পরিচয়ধারী চোরাকারবারী রফ মিয়ার নেতৃত্বে সরকারের লাখলাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে অবৈধ ভাবে কয়লা ও চুনাপাথর পাচাঁর করে প্রথমে চারাগাঁও শুল্কষ্টেশনের বিভিন্ন ডিপুতে মজুত করা হয়। পরে ঠেলাগাড়ি ও ট্রলি দিয়ে পাচাঁরকৃত অবৈধ মালামাল বিজিবি ক্যাম্পের সামনের রাস্তা দিয়ে সমসারপাড় নিয়ে ছোট নৌকা বোঝাই করে বৈঠাখালী বাঁধের কাছে নিয়ে বড় কাঠবড়ি ও স্টিলবডি ইঞ্চিনের নৌকা বোঝাই করে। তারপর পাটলাই, বৌলাই ও রক্তি নদী পথে নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা, ভৈরব ও সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হয় পাচাঁরকৃত কয়লা ও চুনাপাথর। সরকারের লাখলাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে অবৈধ ভাবে পাচাঁর করা এসব অবৈধ কয়লা ও পাথর থেকে থানা পুলিশ, ডিবি পুলিশ, বিজিবি ও সাংবাদিকদের নাম ভাংগিয়ে লাখলাখ চাঁদা উত্তোলন করে রফ মিয়া। এমন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারী) দিনব্যাপী পৃথক অভিযান চালিয়ে ২৭মেঃটন অবৈধ চোরাই কয়লাসহ অরুন দাস ও সালাম মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এব্যাপারে চারাগাঁও শুল্কষ্টেশনের কয়েকজন কয়লা ব্যবসায়ী জানান- সাংবাদিক, পুলিশ, বিজিবির সোর্স পরিচয়ধারী রফ মিয়া ও আলী হোসেন অবৈধ কয়লা ও চুনাপাথর পাচাঁর করার পর চাঁদা উত্তোলন করে। তারা বললে কয়লা ও পাথর পাচাঁর হয়, আর না বললে হয় না। তাদের এই চোরাচালান ও চাঁদাবাজি বাণিজ্য চলছে দীর্ঘদিন যাবত। এব্যাপারে সোর্স আলী হোসেন বলেন- ভারত থেকে যখন কয়লা পাচাঁর হয় তখন আমি শুধু হিসাব রাখি, আর চাঁদার টাকা তুলে রফ মিয়া। আমাকে তারা কর্মচারী হিসেবে রেখেছে। কাকে কত টাকা চাঁদা দেয় তা আমি জানিনা।

তাহিরপুর থানার ওসি ইফতেখার হোসেন বলেন- ১৫ মেঃটন কয়লাসহ ২জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে আর বাকি ১২টন কয়লা পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। এঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এব্যাপারে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ই জানুয়ারী শুক্রবার দুপুরে টেকেরঘাট সীমান্তের বুরুঙ্গা এলাকা দিয়ে অবৈধভাবে কয়লা পাচাঁরের সময় ভারতীয় বিএসএফের গুলিতে দেলোয়ার হোসেন (২৮) নামের এক যুবকসহ গত ৯ মাসে চোরাই কয়লা আনতে ভারতে গিয়ে মোট ৪ বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে।

Related Articles

Back to top button