sliderআন্তর্জাতিক সংবাদশিরোনাম

পুরো ইংল্যান্ডে ফের লকডাউন

আবারো পুরো ইংল্যান্ডে লকডাউন দিয়েছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বৃটেনে এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। বিজ্ঞানীরা সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, সামনেই শীতে আরো ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে। মারা যেতে পারেন কমপক্ষে আরো ৮০ হাজার মানুষ। দিনে সেখানে নতুন করে আক্রান্ত হতে পারেন ২০ হাজার। স্বাস্থ্য বিভাগের এমন হুঁশিয়ারিতে জনসন দ্বিতীয় লকডাউন দিলেন। সরকার এমন ভূমিকায় যাবে এটা আগেই ফাঁস হয়ে গিয়েছিল। ফলে শনিবার দিনশেষে ডাউনিং স্ট্রিটে তড়িঘড়ি করে এক সংবাদ সম্মেলন করেন বরিস জনসন।
সেখানেই লকডাউনের ঘোষণা দেন তিনি। বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়ে তা ২রা ডিসেম্বর পর্যন্ত বহাল থাকবে। এ সময়ে পাব, রেস্তোরাঁ, জিম এবং অত্যাবশ্যক নয় এমন দোকানপাট চার সপ্তাহের জন্য বন্ধ থাকবে। তবে এর আগের লকডাউনের মতো না হয়ে এবার স্কুল, কলেজ ও ইউনিভার্সিটি খোলা রাখা যাবে। ২রা ডিসেম্বরের পরে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে। বরিস জনসন বলেছেন, এবারের বড়দিনটি হয়তো ভিন্নভাবে পালিত হবে। এ সময়ে ব্যবসায় অনেক ক্ষতি হবে বলে দুঃখ প্রকাশ করেন জনসন। নতুন এই লকডাউনের অধীনে লোকজনকে বাড়িতেই অবস্থান করতে হবে। সুনির্দিষ্ট কারণ ছাড়া তারা বের হতে পারবেন না। যেসব কাজ বাড়িতে বসে করা যায় না, শুধু সেসব ক্ষেত্রে বাইরে যেতে পারবেন। চিকিৎসা নিতে, খাদ্য ও অন্য প্রয়োজনীয় পণ্য কেনাকাটার জন্য মানুষ বাইরে যেতে পারবে। ইনডোর মিটিং বা প্রাইভেট গার্ডেন মিটিং অনুমোদিত নয়। বিনোদন কেন্দ্রগুলো বন্ধ থাকবে। নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ও কলকারখানা খোলা থাকবে। যদি পিতামাতা আলাদা থাকেন তাহলে বাচ্চারা তাদের আবাসন পরিবর্তন করতে পারবে। বিবিসি

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button