sliderআন্তর্জাতিক সংবাদশিরোনাম

সৌদি নারীদের বিদেশ ভ্রমণে লাগবে না পুরুষের অনুমতি

বিদেশ ভ্রমণ করতে সৌদি আরবের নারীদের আর পুরুষ অভিভাবকের অনুমতির প্রয়োজন হবে না। স্থানীয় সময় শুক্রবার এ সংক্রান্ত একটি রাজকীয় ফরমান জারি করেছে সৌদি আরব।
নতুন আইন অনুযায়ী ২১ বছর বয়সের বেশি সৌদি নারীরা পুরুষ অভিভাবকের অনুমোদন ছাড়াই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
এ ছাড়া নতুন এই আইন চালুর ফলে শিশুর জন্ম নিবন্ধন, বিবাহ ও বিবাহ-বিচ্ছেদের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন সৌদি আরবের নারীরা।
পাশাপাশি নতুন আইনটি চালু হওয়ায় চাকরি বা অর্থ উপার্জনের ক্ষেত্রে লিঙ্গ, শারীরিক অক্ষমতা বা বয়সের কোনো বৈষম্য রইল না বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়।
নতুন আইন চালু হওয়ার আগে বিদেশ ভ্রমণ কিংবা পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে হলে সৌদি আরবের নারীদের স্বামী, বাবা কিংবা কোনো পুরুষ অভিভাবকের অনুমতির প্রয়োজন হতো।
সৌদি আরবের শাসক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান তাঁর দেশকে ঢেলে সাজানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। তার অংশ হিসেবে এর আগে সৌদি নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়।
২০১৬ সালে মোহাম্মদ বিন সালমান ২০৩০ সালের মধ্যে সৌদি আরবের অর্থনীতির খোলনলচে বদলানোর পরিকল্পনা হাতে নেন। এর অংশ হিসেবে মোহাম্মদ বিন সালমান কর্মক্ষেত্রে নারীর উপস্থিতি ২২ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশে উন্নীত করার লক্ষ্য ঘোষণা করেন।
অবশ্য লিঙ্গ বৈষম্যের অভিযোগ তুলে দেশ ছেড়ে কানাডাসহ বিভিন্ন দেশে সৌদি আরবের নারীদের আশ্রয় প্রার্থনা করার বেশ কয়েকটি ঘটনাও ঘটেছে।
সৌদি আরবে নারীদের দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হয় বলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো প্রায়ই অভিযোগ করে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button