sliderস্থানীয়

সোনারগাঁয়ে প্রযুক্তির মাধ্যমে মহিলাদের ক্ষমতায়ন প্রকল্পের উঠান বৈঠক

আলআমিন কবির, সোনারগাঁও নারায়নগঞ্জ:সোনারগাঁয়ে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে মহিলাদের ক্ষমতায়ন প্রকল্পের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

৫ জুন বুধবার দুপুরে সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে মহিলাদের ক্ষমতায়ন প্রকল্পের উঠান বৈঠক প্রধান অতিথি হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন, সোনারগাঁও উপজেলার মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান, নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাতের সহধর্মিণী রুবিয়া সুলতানা বলেন,বেশিদিন আগের কথা নয়। ১০ থেকে ১৫ বছর আগেও আইসিটি বা তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে একচেটিয়া বিচরণ ছিল পুরুষদের। মূল কারণ কম্পিউটার তথা আইসিটি খাতে শিক্ষা, সেবা ও ব্যবসায় যারা নিয়োজিত ছিলেন, তাদের বেশিরভাগই ছিলেন পুরুষ। কিন্তু এখন আর সে অবস্থা নেই। পাল্টেছে এ চিত্র। বাংলাদেশের নারীরা এগিয়ে এসেছেন তথ্যপ্রযুক্তিতে। যদিও পোশাক শিল্প, ক্ষুদ্র ঋণ, চিকিৎসা সেবা, শিক্ষকতা, গবেষণা, ব্যাংকিংসহ অন্যান্য খাতে নারীর পদচারণা তুলনামূলকভাবে অনেক বেড়েছে। 

এমনিতেই বাংলাদেশে মোট কর্মসংস্থানের মাত্র শতকরা ৫ ভাগ তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে যুক্ত। সেখানে নারীর অবস্থান তো খুঁজে না পাওয়ারই কথা। আশার কথা, নারীর এ খাতে অংশগ্রহণ কম হলেও যোগ্যতায় পিছিয়ে নেই। তবে যেটুকু হয়েছে প্রায় সবটুকুই বেসরকারি খাতে। কম্পিউটার প্রকৌশল, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশলের মতো বিষয়গুলোতে নারীদের অংশগ্রহণ কম হলেও আইসিটি খাতে নারীদের সম্ভাবনা যথেষ্ট। বিশেষ করে উন্নত বিশ্বের তুলনায় উন্নয়নশীল দেশে এ সুযোগের সম্ভাবনা আরো বেশি। কারণ, অর্থনীতিতে তুলনামূলক পিছিয়ে থাকা দেশের নারীরা আইসিটি খাতের অর্থনৈতিক সম্ভাবনার গুরুত্ব বুঝতে পারছেন এবং এ খাতেই কর্মজীবন ও পেশাজীবন গড়ার কথা ভাবছেন।

উল্লেখযোগ্য। এসব প্রকল্পে লাখ লাখ নারীকে তথ্যপ্রযুক্তি সেবা প্রদান করা হয়েছে। নারীরা তথ্যপ্রযুক্তি তথা কম্পিউটার বা আইসিটি শিক্ষা গ্রহণ করে নিজ উদ্যোগে আউটসোর্সিং, কম্পিউটার রিলেটেড ব্যবসার মাধ্যমে আত্মনির্ভরশীল হয়ে ওঠেন। কৃষি, স্বাস্থ্য, আইন, জেন্ডার ও ব্যবসা সম্পর্কে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রামীণ নারীদের সচেতনতা বৃদ্ধি করা এ প্রকল্পের অন্যতম লক্ষ্য। এ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন উপজেলায় উঠোন বৈঠকের মাধ্যমে নারীকে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।’ 

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button