সিংগাইরে বন্যায় তলিয়ে গেছে ৮ হাজার হেক্টর জমির ফসল

সবজি উৎপাদনে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার গুরুত্ব যুগযুগ ধরে চলে আসছে। এখানে উৎপাদিত বিভিন্ন প্রকার সবজি স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকা, সাভারসহ পার্শ্ববর্তী জেলার চাহিদা মিটিয়ে থাকে। চলতি বন্যায় বৃহৎ এ সবজি ভান্ডারটির প্রায় ৮ হাজার হেক্টর জমির ফসল এখন পানির নিচে। ফসল হারিয়ে প্রায় ২০ হাজার কৃষক এখন অমানিশার ঘোর অন্ধকারে দিনাতিপাত করছেন। একেতো মহামারি করোনা, তারপর হঠাৎ বন্যার কবলে পড়ে এখানকার কৃষক পরিবারের দুভোর্গ এখন চরমে।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মওসুমে এ উপজেলাটিতে ১ হাজার ৮’শ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন প্রকার সবজি মাচায় চাষ করা হয়েছিল। যার মধ্যে ১ হাজার ৬’শ হেক্টরই তলিয়ে গেছে। ৩’শ ৫০ হেক্টর পেঁপে ক্ষেত প্রায় পুরোটাই বন্যা কবলিত হয়ে মারা যাচ্ছে। ৩ হাজার হেক্টর বোনা আমন সম্পূর্ণ এবং ২ হাজার ৭’শ হেক্টর রোপা আমনের মধ্যে ২ হজার ৫’শ হেক্টর পানিতে নিমজ্জিত। এছাড়া ৮’শ হেক্টর পাটের মধ্যে সাড়ে ৩’শ হেক্টর জমির পাট চাষিরা কাটতে পেরেছেন।
চান্দহর ইউনিয়নের ওয়াইজনগর গ্রামের কৃষক তকছের আলী জানান, তার আবাদকৃত ৯ বিঘা পাটের মধ্যে ২ বিঘার পাট কাটতে পেরেছেন। বাকী ৭ বিঘা তলিয়ে গেছে। সেই সঙ্গে ৮ বিঘা জমির ধরন্ত সবজি ক্ষেত তলিয়ে গেছে বলেও তিনি জানান।
এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ টিপু সুলতান স্বপন বলেন, বন্যার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে উচুঁ স্থানগুলোতে ধান ও সবজি চারা উৎপাদনের কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। যাতে জমি থেকে পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই চাষিরা আবার নতুন করে ফসল আবাদ শুরু করতে পারেন। কড়চা

Check Also

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের মুখপাত্র নির্বাচিত মঞ্জু

নোয়াখালী প্রতিনিধি : কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের মুখপাত্র নির্বাচিত করা হয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক …