sliderস্থানীয়

সালথায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জামাল হোসেন মিয়ার উঠান বৈঠক

বিধান মন্ডল, (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের গৌড়দিয়ায় স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়ার নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। আটঘর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আক্কাস আলী মাতুব্বরের উদ্যোগে ও আটঘর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের আয়োজনে আক্কাস আলী মাতুব্বরের বাড়ির উঠানে বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় এই নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুজিবুল হকের সঞ্চালনায় উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট মো. জামাল হোসেন মিয়া। আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক শহিদুল হাসান খান সোহাগ, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান লেবু মোল্যা, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ওয়াসিম জাফর রামকান্তপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইশারত হোসেন, আটঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. হাদিস মিয়া, সাধারণ সম্পাদক বাবু বরুণ সরকার, আওয়ামী লীগ নেতা ইব্রাহিম মাতুব্বর।

প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মো. মোসলেম মাতুব্বরের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা টুটুল মোল্লা (মীরকান্দি গ্রাম), আব্দুল মাজেদ মাতুব্বর (শৌলডুবি গ্রাম), আব্দুল খালেক মাতুব্বর (সালথা গ্রাম), আব্দুল মাতুব্বর (গৌড়দিয়া গ্রাম), লুৎফর মাতুব্বর (গৌড়দিয়া), বিপ্লব মাতুব্বর (গৌড়দিয়া), রাকিবুল হাসান (পাঁচপাকিয়া গ্রাম), নবাব আলী (বিভাগদী গ্রাম) প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আগত বক্তারা বলেন, আমরা নৌকার বাইরে না আমরা প্রার্থীর বিপক্ষে। জামাল হোসেন মিয়া আমাদের এলাকার ছেলে, সুখে দুঃখে আমরা তাকে পাই। আমরা যারা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ আছি আমাদের মনোনীত প্রার্থী এ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া কে ঈগল পাখি মার্কায় ভোট দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কে উপহার দিব। আপনারা কারো কথায় বিব্রত হবেন না, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। আপনারা সবাই নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়ে জামাল হোসেন মিয়াকে জয়যুক্ত করবো।

নির্বাচনী উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া বলেন, আমি আপনাদের মাটি ও মানুষের সন্তান। আমি আপনাদের ইচ্ছায় আমি নির্বাচন করছি। আপনাদের ভোটের অধিকার আমি ফিরিয়ে দিয়েছি। ভোট পাওয়ার অধিকার আমার আছে। আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ আমাকে ভোট দিয়ে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিন। তারা যে মামা বাহিনী গঠন করেছে তার দাঁত ভাঙ্গার জবাব দিতে আমার ঈগল পাখি মার্কায় আমার ঈগল পাখি মার্কায় ভোট দিয়ে ভোট দিয়ে প্রমাণ করতে হবে যে এই এলাকায় সন্ত্রাসের কোন স্থান নেই। তাই সবাই আমাকে ঈগল পাখি মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন। সকলেই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে আমার জন্য দোয়া করবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button