sliderস্থানীয়

সালথায় পরকীয়ায় জড়িয়ে নিজেকে শেষ করল প্রাবাসী যুবতী

সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: স্বামী দিনমুজুর। তার একার আয়ে চলছিল না সংসার। তাই জীবিকার তাগিদে গত দুই বছর আগে জর্ডানে পাড়ি জমান স্ত্রী চম্পা বেগম (৩৪)। তবে সেখানে গিয়ে পরকীয়ায় জড়িয়ে বেশিদিন থাকতে পারেননি তিনি। দেশে আসার পর পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলাকে কেন্দ্র করে স্বামীর সঙ্গে তার তুমুল ঝগড়া হয়। এতে অভিমান করে গলায় ফাঁস নিয়ে নিজের জীবন শেষ করে দেন চম্পা।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের কসবা গট্টি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। চম্পা ওই গ্রামের দিনমুজুর তাওহিদ শেখের স্ত্রী। এদিকে অকালে মাকে হারিয়ে পাগলের মতো হয়ে গেছে দুই শিশুসন্তান। তাদের ডাক-চিৎকারে ভারি হয়ে উঠে বাড়ির পরিবেশ। ঘটনার পর নিহতের পরিবার ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

নিহতের পরিবার জানান, গত চার মাস আগে জর্ডান এসে মাঝে মাঝেই পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে কথা বলতো চম্পা। বিষয়টি নিয়ে স্বামীর সঙ্গে কয়েকবার ঝগড়া হয়। সর্বশেষ বুধবার সন্ধ্যায় স্বামীর সাথে ঝগড়া করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে নিজ ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে পড়েন। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ ফায়েজুর রহমান বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে ফের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button