sliderস্থানীয়

সালথায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষ পুলিশের গাড়ি ভাংচুর: আহত ৬, নারীসহ আটক-৩

বিধান মন্ডল (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সালথায় গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ এবং পুলিশের গাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় পুলিশসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার (২৮ জুন) বিকেলে উপজেলা গট্টি ইউনিয়নের ভাবুকদিয়া দক্ষিণ পাড়া গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে আহতদের নাম পাওয়া যায়নি। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে শটগানের এক রাউন্ড লেডবল ফাঁকা ফায়ার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এসময় ঘটনা স্থল থেকে নারীসহ ৩ জনকে আটক করে পুলিশ।

আটকৃতরা হলেন, ভাবুকদিয়া দক্ষিণপাড়া গ্রামের সামাদ মোল্লার স্ত্রী ফিরোজা বেগম, তার ছেলে সাইদুল মোল্লা (২৩), রুস্তম মোল্লার স্ত্রী ঝরনা বেগম (৪০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সামাদ মোল্লা(৫৫) তার প্রতিবেশী সুজন মোল্লা (৩৫) মধ্যে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। আজ বিকালে সামাদ মোল্লা ও তার লোকজন জোরপূর্বক বিরোধীর জমি থেকে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে এ মর্মে সুজন মোল্লা কর্তৃক ৯৯৯ -এর ফোন পেয়ে সালথা থানার কিলো পার্টির ইনচার্জ এসআই আবু রায়হান নুর ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে সামাদ মোল্লাসহ তার পক্ষের ফিরোজা বেগম(৪০), সাইদুল মোল্লা (২৩),ঝরনা বেগম (৪০) ইউনুস মোল্লা (৩৬), পিতা-আজিম উদ্দিন মোল্লাসহ আরো ৮ থেকে১০ জন পুলিশের সামনে লাঠি সোটা দিয়ে সুজন মোল্লাকে পিটাতে থাকে। পুলিশ উভয় পক্ষের লোকজনকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু উল্লেখিত আসামিগণ শান্ত না হয়ে পুলিশের উপর চড়াও হয়। বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটিয়ে পুলিশ সদস্য শফিকুল ইসলাম এর বাম হাতের কব্জিতে নীলাফুলা জখম করে এবং পুলিশের সরকারি লেগুনা গাড়ির সামনের গ্লাসে থাপ্পড় দিলে গ্লাস ফেটে যায়। কিন্তু উশৃঙ্খল লোকজন আরো উত্তেজিত হলে তথায় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্য ১৩৩৪ জেলহক তার নামীয় ইস্যুকৃত শটগান হতে এক রাউন্ড লেডবল ফাঁকা ফায়ার করলে উশৃঙ্খল লোকজন ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান বলেন, ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে ভাবুকদিয়া গ্রামে পুলিশের একটি টিম যায়। সেখানে গিয়ে তারা দেখেন, জমিজমা সংক্রান্ত নিয়ে বিরোধের জেরে একজন আরেকজনের গাছ কেটে নিচ্ছে। এতে বাধা দিলে পুলিশের উপর চড়াও হয় স্থানীয়রা। একপর্যায় পুলিশের উপর হামলা চালায় ও তাদের গাড়ির গ্লাস ভেঙে ফেলে তারা। পরে শর্টগানের এক রাউন্ড ফাকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন পুলিশ।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় পুলিশের ২-৩ জন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে দুই জন নারী ও একজন পুরুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button