sliderস্থানীয়

শেরপুরের কৃতি সন্তান জাতীয় রচনা ও পাঠ প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেলেন

মিজানুর রহমান, শেরপুর প্রতিনিধি: বই পরি মোবাইল আসক্তি প্রতিহত করি এই লক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও জাহানারা ইমামের একাত্তরের দিনগুলি গ্রন্থের উপর রচনা ও পাঠ প্রতিক্রিয়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

২৬ জুন বুধবার রাজধানীর আগারগাঁও জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরে এই পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রের পরিচালক এবং একুশে পদক প্রাপ্ত কবি ও প্রাবন্ধিক মিনার মনসুরের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণীর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সাংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী।

এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব রাজীব কুমার সরকার, মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক, বিশিষ্ট কবি ও সাহিত্যিক অধ্যাপক ঝর্ণা রহমান, বিভিন্ন পাঠাগারের প্রতিনিধি ও জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে সারা বাংলাদেশ থেকে বিভিন্নপাঠাগার থেকে অসংখ্য পাঠ প্রতিযোগীর রচনা জমা পড়ে‌। সেখান থেকে বাছাই করে ৬৪ জনকে পাঠ প্রতিক্রিয়ায় জন্য দ্বিতীয় পর্বে ডাকা হয়। বুধবার ৬৪ জনকে সেরা ঘোষণা করে এবং এদের মধ্য থেকে ২২ জনকে সেরাদের সেরা ঘোষণা করা হয়।
পরে বিজয়ীদের নগদ টাকা, বই ও সনদপত্র প্রদান করা হয়। এর আগে মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর অডিটরিয়ামে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শেরপুর জেলার আজিমুন্নেছা-তমিজ উদ্দিন খন্দকার স্মৃতি গণ গ্রন্থাগার থেকে অসমাপ্ত আত্মজীবনী গ্রন্থের উপর অংশগ্রহণ করে আমানুল্লাহ আসিফ ও একাত্তরের দিনগুলি গ্রন্থের উপর অংশগ্রহণ করে আশরিফা আক্তার রিয়া পুরষ্কার অর্জন করেন।

আজিমুন্নেছা-তমিজ উদ্দিন খন্দকার স্মৃতি গণ গ্রন্থাগারের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আলীম বলেন আয়োজনটি খুব যুগ ছিলো। এরকম আয়োজন নিয়মিত করলে শিক্ষার্থীরা বই মুখী হতে পারবে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button