sliderবিনোদনশিরোনাম

শুদ্ধচিত্তের নির্বাহী সমন্বয়ক প্রয়াত লিসানুল হক তারেকের স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

পতাকা ডেস্ক: শনিবার বিকেলে শুদ্ধচিত্ত সাংস্কৃতিক সংসদের আয়োজনে বিজয়নগরস্থ শুসাসের অস্থায়ী কার্যালয়ে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

বিশিষ্ট অভিনেত্রী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও শুদ্ধচিত্তের প্রধান উপদেষ্টা আরজুমান্দ আরা বকুলের সভাপতিত্বে এবং  এনামুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেজর (অবঃ) ডাঃ আব্দুল ওহাব মিনার বলেন, অনেক বড় কিছু হয়েও অনেক বিনয়ী একজন মানুষ ছিলেন তারেক ভাই।খুব অল্প সময়ের মধ্যে তারেক ভাইয়ের চারিত্রিক মাধুর্য আমাকে বিমোহিত করেছে।

মজিবুর রহমান ভূঁইয়া মঞ্জু তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন, তারেক ভাইয়ের মত মানুষের আবির্ভাব যুগে যুগে খুব কমই হয়ে থাকে। তিনি বলেন তারেক ভাই সবাইকে কাঁদিয়ে হাসিমুখে এই পৃথিবীর মায়া ছেড়ে মহান আল্লাহর ইচ্ছায় ওপারে পাড়ি জমিয়েছেন। তারেক ভাইয়ের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি বার বার আবেগাপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।


স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বিশিষ্ট অভিনেতা মাসুদ রানা মিঠু বলেন, তারেক ভাই ছিলেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। তাঁর মত মেধাবী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বাংলাদেশে খুব কমই। তিনি ছিলেন খুবই সাদামাটা প্রচার বিমুখ একজন ব্যক্তি। মিডিয়া কর্মীদেরকে খুবই অল্প সময়ে আপন করে নেয়ার মত এক অসাধারণ যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তি ছিলেন আমাদের তারেক ভাই।
প্রয়াত লিসানুল হক খান তারেকের সহধর্মিণী শারমিন আক্তার স্বামীর স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কান্নায় ভেংগে পড়েন । স্বামীর জন্য সবার কাছে দোয়া চান এবং কারো মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে তার জন্য ক্ষমা চান।
সভাপতির বক্তব্যে আরজুমান্দ আরা বকুল বলেন, তারেক ভাই একজন নিখুঁত মানুষ ছিলেন তাই মহান সৃষ্টিকর্তা তাকে যেই দায়িত্ব দিয়ে পাঠিয়েছিলেন তা তিনি খুব অল্প সময়ের মধ্যে শেষ করতে পেরেছেন।মহান রব তার দায়িত্ব শেষে তাকে নিয়ে গেছেন।আমরা তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,জিটিভি আর্ট ডিরেক্টর  ফয়েজ বিন আকরাম, জিটিভি প্রোগ্রাম প্রডিউসার সাইফুল ইসলাম সাইফ, জিটিভি প্রোগ্রাম প্রডিউসার এইচ এম তানভীর হাসান, মোঃ আলতাফ হোসাইন ও শাহাদাত উল্লাহ টুটুল সহ প্রমুখ।

ব্যক্তিগত জীবনে লিসানুল হক খান তারেক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন । শিক্ষাজীবনের পরে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন তাছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকুরীরত ছিলেন । তার সর্বশেষ কর্মস্থল ছিল গাজী টিভি।
থিয়েটার কর্মী, টিভি নাট্য নির্মাতা ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তারেক খান গত ১৫ মে গাজী টিভিতে কর্মরত অবস্থায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।
সবশেষে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button