sliderপরিবেশশিরোনাম

শিশু-কিশোরদের মাঝে বেশি বেশি পরিবেশ বিষয়ক চিত্রাঙ্কন-কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে হবে: সবুজ আন্দোলন

জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিশুরা। অতি বৃষ্টি অনাবৃষ্টির ফলে দেখা দিয়েছে পরিবেশ বিপর্যয়। উপকূলীয় অঞ্চলের শিশুরা অনেকেই বাস্তহারা হওয়ার ফলে তাদের ভবিষ্যৎ জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে। পরিবেশ বিপর্যয়ের এই ভয়াবহতা থেকে জনসচেতনতা তৈরিতে কাজ করছে পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন। আজ ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকালে সবুজ আন্দোলনের কামরাঙ্গীরচর থানা শাখার উদ্যোগে ঝাউলাহাটি এলাকায় আমিন একাডেমী এন্ড হাই স্কুলে “শিশু—কিশোরদের মাঝে চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতার” আয়োজন করা হয়। সবুজ আন্দোলন কামরাঙ্গীরচর থানা শাখার সভাপতি ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্কুলের সভাপতি হাজী মোঃ মজিবুর রহমান, স্কুলের পরিচালক মোঃ নাসির উদ্দিন, সহকারী পরিচালক এম এম মোস্তাফিজুর রহমান জামিল, সবুজ আন্দোলন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য জামিল আহমেদ ও লালবাগ থানা সমন্বয়কারী হিরা মনি।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় উন্নত রাষ্ট্রগুলো কার্বন নিঃসরণ না কমালে আমাদের মত ক্ষতিগ্রস্ত রাষ্ট্রগুলো বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হবে। নিয়মিত প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ফলে উপকূলীয় অঞ্চলের জনগণ বাস্তুহারা হচ্ছে। নদী ভাঙনের ফলে লক্ষ লক্ষ মানুষ গৃহহীন হয়ে সর্বস্ব হারিয়ে মানবতার জীবন যাপন করছে। বিশেষ করে শিশুরা তাদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত হওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে। আমাদের সংগঠন শিশুদের মাঝে পরিবেশ বিষয়ক জনসচেতনতা তৈরিতে নিয়মিত কাজ করছে। শিশু—কিশোরদের মাঝে বেশি বেশি পরিবেশ বিষয়ক চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে হবে। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরিবেশ বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও সাধারণ জ্ঞান ছড়িয়ে দিতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

বিজিত শিক্ষার্থীদের মাঝে পরিবেশ বিষয়ক মূল্যবান বই বিতরণ করা হয়। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন স্কুলের সহকারী শিক্ষক সালমা আক্তার, আজাদ রহমান,নার্গিস খাতুন, ফাতেমা আক্তার সুমি, মিম আক্তার, রাজিব হোসেন, মনজুরুল ইসলাম, মেহজাবিন ইসলাম সাফা প্রমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button