sliderস্থানীয়

শিবালয়ে আ’লীগের ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন

শিবালয় প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুর রহিম খান এবং উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান, এবারেরও চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউর রহমান খান জানু পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন করেছেন।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বেলা ১০টার দিকে উপজেলার সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল রহিম খানের প্রায় হাজার খানেক কর্মী সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একই স্থানে অপর প্রার্থী রেজাউর রহমান খান জানুর কর্মী-সমর্থকেরাও মানববন্ধন করেছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, শিবালয় উপজেলা পরিষদের বর্তমান রেজাউর রহমান খান জানুর সন্ত্রাসী বাহিনীদের দিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম খানের ওপর হামলা করা হয়। হামলার সময় ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি করা হয়। এছাড়া উপজেলার আরুয়া ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য জয়নাল ও দেলোয়ারের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

বক্তারা আরো বলেন, আগামী ২১ মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম খানের জনপ্রিয়তা ও জনগণের ভালোবাসা দেখে বর্তমান চেয়ারম্যান ও তার কর্মীদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। নির্বাচনের পরিবেশ তারা নষ্ট করছে, ভোটারদের নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে। যাতে ভোটের দিন ভোটাররা কেন্দ্র ভোট দিতে না যায়। কিন্তু জনগণের মনোনীত প্রার্থী রহিম খান, সুষ্ঠ নির্বাচন হলে তার বিজয় সুনিশ্চিত। জানুর সন্ত্রাসী বাহিনীদের রুখে দিতে নির্বাচনের মাঠে রহিম খানের কর্মী সমর্থকদের মাঠে থাকার আহবান করা হয়।

জানা গেছে, গত শনিবার (২৭ এপ্রিল) রাতে শিমুলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা শেষে ব্যক্তিগত গাড়ি যোগে ফিরছিলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম খান। উপজেলার বিবিরাস্তি এলাকায় তিনটি মোটরসাইকেলযোগে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার গাড়ির গতিরোধ করার চেষ্টা করেন। একই সময় পাশের কবরস্থানের পাশ থেকে আসেন আরো কয়েকজন। তারা গাড়ি লক্ষ্য করে ককটেল ও গুলি ছুড়তে থাকেন। এ সময় ককটেলের আঘাতে গাড়ির পেছনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পরে গত রোববার (২৮ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন তিনি।

মানববন্ধন শেষে শিবালয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম খান সাংবাদিকদের বলেন, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমাকে নির্বাচন করতে দেয়া হয় নাই। বর্তমান চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান খান জানু নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করেছে। এবার নির্বাচনে আমি চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি শুধু মাত্র জনগণের দাবিতে। জানু তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমার ওপর হামলা করেছে, ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি করেছে। আমার কর্মী সমর্থকদের ওপরও হামলা করেছে। তারা নির্বাচনে আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করছে, ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে।

তিনি বলেন, হামলার পরে আইনি সহায়তার জন্য শিবালয় থানা অভিযোগ দিয়েও কোনো সুফল মিলছে না। পুলিশ এ বিষয়ে আমাকে আইনিভাবে কোনো সহযোগিতা করে নাই এবং অভিযুক্তদের গ্রেফতারে কোনো তৎপরতা নেই। নিজের জীবনের নিরাপত্তা নিয়েও শঙ্কায় দিন কাটছে। গত বারের নির্বাচনে বিভিন্ন কলা-কৌশল খাটিয়ে জানু নির্বাচন মোকাবেলা না করেই বিজয়ী হয়েছিল’ কিন্তু এবার তার কোনো কলা-কৌশল কাজে আসে নাই। তিনি নির্বাচনকে, জনগণের রায়কে ভয় পাই, তাই সবাইকে ভয় দেখিয়ে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিততে চায়। এবার এটা না পেরেই তার মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তিনি তার বাহিনী দিয়ে ভয়-ভীতির পরিবেশ তৈরির চেষ্ঠা করছে। যাতে জনগণ ভোট কেন্দ্রে না যায়। তিনি জানেন জনগণ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে তার কি হাল হবে। কিন্তু জনগণ অবশ্যই ভোট কেন্দ্রে যাবে এবং তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিবে।আমার দাবি সরকার সঠিক নির্বাচন উপহার দেয়ার জন্যে, আইন-শৃংখলা ঠিক রাখার জন্যে অতিদ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

অপর দিকে রেজাউর রহমান খান জানুর মানববন্ধন হতে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপর প্রার্থী আব্দুল রহিম খানকে জানু ও তার লোকদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ প্রত্যাহারের আলটিমেটাম দিয়েছে।
সব মিলিয়ে বর্তমান অবস্থা মারাত্নক সংঘাত পূর্ণ। এলাকার সাধারণ ভোটার থেকে পোলিং এ প্রিসাইটিং অফিসারসহ যারা নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করবে তাদের সবার মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

শিবালয় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আবদুর রউফ সরকার জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম খান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। তার ওপর হামলার ঘটনা জানার পর পরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযোগটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আজকে উপজেলা চত্বরে রহিম খানের কর্মী সমর্থকরা হামলার প্রতিবাদে একটি মানববন্ধন করেছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button