sliderস্থানীয়

লালপুরে সরকারী রাস্তা মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের লালপুরে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে কাঁচা রাস্তার মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার দক্ষিণ লালপুর পদ্মারচরের একমাত্র রাস্তা কেটে গর্ত খনন করায় চরাঞ্চলের লোকজনের চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরাঞ্চলের লোকজনের যাতায়াতের ভোগান্তি ও কৃষকদের পণ্যবাহী যানবাহন যাতায়াতের জন্য বিকল্প রাস্তা তৈরি করে ফসলী জমি নষ্ট করে যাতায়াত করতে হচ্ছে। এছাড়া ভেকো মেশিন দিয়ে রাস্তার অন্তত ১৫ ফিট প্রস্থ ও ৪০ ফিট দৈর্ঘ্যের মাটি কাটা হয়ে গেছে। এতে ওই পথে চলাচলকারী মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি করেছেন তারা।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ১৫ ডিসেম্বর গভীর রাতে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত শাহাবাজ মন্ডলের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৫০), ও দক্ষিন লালপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে মানিক (৩২) চলাচলের রাস্তা খনন করে মাটি কেটে নিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা পুলিশ-প্রশাসনকে জানালে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে রাস্তার মাটি কাটা বন্ধ করে দেন।
এবিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা শমসের আলী বলেন, রাস্তার মাটি ইটভাটায় বিক্রি করে দিয়েছে মাটি খেকোরা। ইটভাটার লোকজন এসে রাস্তার মাটি কেটে নিয়ে গেছে। এখনো ইসমাইল হোসেনের ছেলে মানিকের বাড়িতে ভেকু রাখা আছে।
সরকারি রাস্তায় গর্ত খননের বিষয়ে জানতে চাইলে শরিফুল ইসলাম বলেন, রাস্তার উঁচু নিচু সমান করতে মাটি কাটা হয়েছে। পুলিশ বাঁধা দেয়ায় আপতত কাজ বন্ধ রেখেছি।
এবিষয়ে লালপুর থানার (ওসি) মোহা. মোনোয়ারুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ফোর্স পাঠিয়ে মাটি কাটা বন্ধ করেছি। এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (দায়িত্বপ্রাপ্ত) ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) দেবাশীষ বসাক বলেন, ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাকে সরেজমিনে তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রিপোর্ট পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Articles

Back to top button