sliderরাজনীতিশিরোনাম

রাজনৈতিক সংকট নিরসনে জন জোটের গণসংলাপ

চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে ছাত্র যুব শ্রমিক, সুশীল সমাজ এবং রাজনীতিবিদদের করণীয় বিষয় একটি গণ সংলাপের আয়োজন করা হয় । গতকাল ২৫ মে (শনিবার) তোপখানা রোডা,ঢাকা, শিশুকল্যাণ ভবন ভিআইপি লাউন্সে উক্ত সংলাপ অনুষ্ঠিত হয় । জন জোটের প্রধান সমন্বয়ক ফার্মাসিস্ট মুজাম্মেল মিয়াজীর সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় নারী সমন্বয়ক রেশমা আক্তারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয় ।

অনুষ্ঠানের প্রথমে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জন জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক মার্চেন্ডাইজার মাহবুব শামীম । তিনি জন জোটের উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য সহ ১১ দফা উপস্থাপন করেন ।

তিনি বলেন, জন জোট হচ্ছে জনগণের আশা—আকাঙ্ক্ষার একটি সংগঠন । যে সংগঠন সব সময়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে ও শোষকদের প্রতিবাদে করবে এবং জনগণের পক্ষে রাজপথে থাকবে ইনশাআল্লাহ ।

তিনি বলেন, রাষ্ট্র একটি ভয়ংকর সংকটে আছে তাই জন জোটের ১১ দফা বাস্তবায়িত হলে সকল সংকট থেকে মুক্তি সম্ভব বলে আমি মনে করি ।

প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক জনাব মাহমুদুর রহমান মান্না । তিনি বলেন, দেশের রিজার্ভ একবারি শূন্যের দিকে আছে । সরকার নিজেও ভয়ানক বিপদে আছে কিন্তু সেটা জনসম্মুখে আসছে না । দেশের প্রধান নিজেই বলছে আরকান ও চট্টগ্রাম নিয়ে একটি খৃষ্টান রাষ্ট্র গঠন করার ষড়যন্ত্র চলছে তবে জাতি জানতে চায় কারা ষড়যন্ত্রকারী যারা দেশের মানচিত্রে হাত দিতে চায় । এটা স্পষ্ট করা হোক ।

প্রধান বক্তা হিসাবে ছিলেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও সিনিয়র এ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী । তিনি বলেন, চলমান সংকট থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র উপায় হচ্ছে শেখ হাসিনাকে বিদায় ঘন্টা বাজানো । শেখ হাসিনার পদত্যাগের দাবিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে নামতে হবে ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মন্জু । তিনি বলেন, দেশের এই সংকটকালে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে যেইভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল ১৯৯০ সালে । তবে সংকট থেকে প্রকৃত মুক্ত পেতে হলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে । এটাই তুলনামূলকভাবে গ্রহণযোগ্য ।

বিশেষ আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক নুরুজ্জামান হিরা ।তিনি বলেন, দেশে এখন ফেরাউনের শাসন চলছে । কৃষক ১ কেজি ধান বিক্রি করে ২০ টাকা আর এই দিকে আধা লিটার পানিও বিক্রি হয় ২০ টাকা । এটাকেই বলে ফেরাউনের শাসন ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ্ আমিন । তিনি বলেন, সকল সংকটের একমাত্র উপায় দল মত নির্বিশেষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শোষকদের বিরুদ্ধে মোকাবেলা করা এবং খেলাফত কায়েম করা ।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জন জোটের উপদেষ্টা হারুনুর রশিদ খান ।তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরিয়ে এনে নির্বাচন এবং ভোটাধিকার আদায়ের আন্দোলনই একমাত্র সংকট থেকে মুক্তির উপায় ।

বিশেষ আলোচক হিসাবে আরো ছিলেন রাষ্ট্র সংস্কারের কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুর রহমান রিজু । তিনি বলেন, ইতিহাস থেকে আমাদের শিক্ষা নেওয়া উচিত ।

এই সময়ে সংকট থেকে উপায়ের একমাত্র উপায় হচ্ছে রাজনীতিবিদ সহ সকল শ্রেনীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের পক্ষে লড়াই করতে হবে ।

জন জোটের প্রধান সমন্বয়ক ও গণ সংলাপের সভাপতি ফার্মাসিস্ট মুজাম্মেল মিয়াজী বলেন — সরকার নিজেই একটা সংকট । বারাবার অবৈধ নির্বাচন দিয়ে এবং অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে এই সংকটকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে । কোন দেশের হস্তক্ষেপকে প্রশ্রয় না দিয়ে জাতীয়তাবাদকে আরো শক্তিশালী করতে পারলে তবে সকল সংকট থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব ।

বক্তব্য প্রদান করেন গণ ফোরামের তথ্য ও মিডিয়া বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদউল্লাহ মধু। তিনি বলেন, ছাত্র, যুব, শ্রমিক ও দল মত নির্বিশেষে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে এই সংকট থেকে মুক্তি পেতে হবে৷

আরো বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সদস্য সচিব ইসমাইল সম্রাট, ছাত্র জন জোটের ছাত্র সমন্বয়ক তারেক আজিজ, শ্রমিক জন জোটের শ্রমিক সমন্বয়ক হাসান আলী স্বপন, যুব জন জোটের যুব সমন্বয়ক মাসুদ মুন্সি ।

ফার্মাসিস্ট মুজাম্মেল মিয়াজী সকলের বক্তব্য শেষে প্রোগ্রামের সমাপ্তি ঘোষণা করেন ৷

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button