sliderস্থানীয়

রাঙামাটিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

মোঃ হাবীব আজম, রাঙামাটি প্রতিনিধি : প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ট নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। কোন ষডযন্ত্রই দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে থামাতে পারবে না।
৭৩ বছরের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ভাঙ্গতে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে কিন্তু আওয়ামী লীগকে ভাঙ্গতে পারেননি। শুধু মাত্র কিছু নেতা দলছুট হয়েছে মাত্র বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি। তিনি বলেন, আজ পার্বত্য এলাকায় প্রতিটি ঘরে ঘরে সোলারের মাধ্যমে বিদ্যুতের সুবিধা পৌছে যাচ্ছে। রাস্তাঘাটসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হয়েছে। বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন হচ্ছে। গৃহহীন পরিবাররা জমিসহ ঘর পেয়েছে। যা আওয়ামীলীগ সরকারের আমলেই হয়েছে। অন্যকোন সরকার করতে পারেনি। বুধবার (২৭ জুলাই) বিকালে রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৮তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙামাটিতে বর্ণাঢ্য র ্যালী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
রাঙামাটি জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আয়োজনে আলোচনা সভায় জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শাউয়াল উদ্দীনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, সাবেক আওয়ামী লীগের নেতা হাবিবুর রহমান, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজলসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় দীপংকর তালুকদার এমপি আরো বলেন, সকলের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে তরুণদের কমিটিতে স্থান দিয়ে আওয়ামী লীগের পুর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা হবে। তিনি বলেন, ২৪ মে সম্মেলন শেষ মানে আগের সকল সমস্যা সমাধান হয়ে গেছে। নতুন করে কেউ যদি নিজের পাল্লা ভারী করার জন্য নেতা কর্মীদের সংগঠিত করছে তা কিন্তু ভুল হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন তিনি। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের সম্মেলন শেষ করার নির্দেশনা প্রদান করেন।
আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবক লীগ একটি প্রধানতম ও প্রাণ প্রিয় একটি সংগঠন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সংগঠনটির নেতাকমীরা দেশের বিভিন্ন দুর্দিনে জনগণের পাশে থেকেছে। এ সংগঠন শুধু নিজ স্বার্থের জন্য নয়, দেশের স্বার্থে, দেশের মানুষের স্বার্থে কল্যাণমূলক কাজ করে যাচ্ছে। তাই একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন হিসেবে জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে আর্তমানবতার সেবায় নিজেদের নিয়োজিত রাখার আহবান জানান বক্তারা।
আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিবৃন্দরা স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্টা বার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়।
এর আগে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সামনে থেকে একটি র ্যালী বের করা হয়। র ্যালীটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দলের সহযোগী সংগঠন হিসেবে ১৯৯৪ সালের এই দিনে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়।

Related Articles

Back to top button