sliderস্থানীয়

যশোরে ২৭৫ কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ, মাঠে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ১৬ হাজার সদস্য

পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার জানান, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে যশোরের ছয়টি আসনে ২৭৫টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। পুরো জেলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকবে ১৬ হাজার সদস্য।

তিনি জানান, এর মধ্যে পুলিশ, আনসার, বিজিবি, সেনা সদস্য, ম্যাজিস্ট্রেটসহ গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন। ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত নির্ধারিত পুলিশ সদস্যরা বডি ক্যামেরা ব্যবহার করবে। যাতে করে অপরাধীদের শনাক্ত করে তাৎক্ষণিকভাবে ম্যাজিস্ট্রেটরা সাজা নিশ্চিত করতে পারেন।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) জেলা পুলিশ লাইন্সে আসন্ন নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত সদস্যদের ব্রিফিং শেষে সাংবাদিকদের পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় কুমার জোয়ারদার এই কথা জানান।

পুলিশ সুপার জানান, নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত সদস্যদের জন্য এই ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়।

এ সময় ভোটারদের জন্য শান্তিপূর্ণভাবে ভোটদানের ব্যবস্থা করা এবং শতভাগ নির্বাচনি সরঞ্জাম ও ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা রক্ষার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

পুলিশ সুপার বলেন, ভোটের দিন পুরো যশোর জেলাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হবে। নির্বাচনে নিরাপত্তা দিতে দুই হাজার ৫০০ পুলিশ সদস্য, ১০ হাজার আনসার সদস্য, ৪৫০ বিজিবি সদস্য, সেনা সদস্য, ম্যাজিস্ট্রেটসহ গোয়েন্দা বাহিনীর ১৬ হাজার সদস্য নিয়োজিত থাকবে।

ব্রিফিংয়ে পিবিআই যশোরের পুলিশ সুপার (এসপি) রেশমা শারমিন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আনিসুর রহমান ও জেলা আনসার কমান্ডেন্ট সঞ্জয় সাহা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) বেলাল হোসাইনসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র : ইউএনবি

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button