sliderস্থানীয়

ময়লা-আবর্জনায় নষ্ট হচ্ছে বাজারের পরিবেশ

এস এম জীবন রায়হান: শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার গোলার বাজারে অপরিকল্পিত ময়লা-আবর্জনা ব্যবস্থাপনার জন্য নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। একদিকে খাল, অন্যদিকে পাঁকা ঘাট সাধারণ মানুষের ব্যবহারের জন্য। ঠিক তার পাশেই অপরিকল্পিত ময়লা-আবর্জনার স্তুপে গড়ে ওঠায় যেন জীব বৈচিত্র্যের জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এই পরিবেশেই ধোয়া হচ্ছে ডেকোরেটরের ডেগ কতটা স্বাস্থ্যসম্মত যেকোনো মুহূর্তে আসতে পারে এ অঞ্চলের মানুষের জন্য বিপর্যয়। একদিকে অপরিকল্পিত বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কারণে খাল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে, এসব আবর্জনা ফেলা হচ্ছে পাঁকা ঘাটের পাশে আর সেই ময়লা-আবর্জনার পানি দিয়ে ধোয়া হচ্ছে ডেগ । এর ফলে দূষণ ও ময়লাযুক্ত বিষাক্ত পানিতে খাল ও এর আশপাশের পরিবেশের উপর পড়ছে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব। পাশের খাল নালাগুলো নষ্ট হয়ে জীববৈচিত্র্য ধ্বংসের পথে।

বছরের পর বছর ধরে নড়িয়া উপজেলার গোলার বাজারের মেইন রোডের সাথে খাল পারে সরকারী ভাবে নির্মাণধীন পাঁকা ঘাটে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের ব্যবহৃত বর্জ্য ও উচ্ছিষ্ট খাদ্যসামগ্রী এখানে ফেলে ময়লার স্তূপ করা হয়েছে। এতে আশপাশের মানুষের জীবন হয়ে উঠেছে অতিষ্ঠ। এই ময়লার কারনে ঘাটটি ব্যবহার করতে পারছেন না সাধারন জনগণ একই সঙ্গে ঘাটলার পাশে থাকা দোকানদার ও মেইন সড়ক হওয়ায় যাতায়াতকারী সাধারণ জনগণ দুর্গন্ধযুক্ত এলাকা পার হওয়ার সময় দুর্ভোগে পড়ছেন। বিষয়টি বাজার কমিটির কর্তৃপক্ষের নজরে দিলে ও নিচ্ছে না কোন রকম ব্যবস্থা।

স্থানীয় দোকানদার ও ব্যক্তিদের কাছ থেকে জানতে চাইলে তারা বলেন আমরা বার বার নিষেধ করা সত্ত্বেও তারা বিষয়টিকে আমলে নিচ্ছেন না তাদের মত তারা ময়লা-আবর্জনা ফেলে যাচ্ছেন, আমরা মাঝে মধ্যে দোকানদাররা মিলে টাকা উঠিয়ে ঘাটলাটাকে পরিষ্কার করি কিন্তু তারা আবার ময়লা আবর্জনা ফেলে পরিবেশ নষ্ট করতেছেন। তারা জানান দীর্ঘদিন যাবত গোলার বাজার বনিক সমিতির নির্বাচন হচ্ছে না মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে ও কোন নির্বাচন দিচ্ছেনা , পূরান কমিটি নিয়েই চলছে বাজারের বনিক সমিতি।একটি ডাম্পিং স্টেশন নির্মাণ করে ময়লা ফেলা হলে পরিবেশ রক্ষা পেত।

এ বিষয়ে নড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ পারভেজ জানান, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরবেন। বলেন, সরেজমিন দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন। অবশ্যই পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে এবং এর দুর্গন্ধ থেকে বিভিন্ন রকম রোগ-জীবাণু ছড়াচ্ছে। বিষয়টি ভেবে দেখা দরকার।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button