sliderস্থানীয়

মেয়র আইভী পরিবারের বিরুদ্ধে দেবোত্তর সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ : যার নামে ‘নারায়ণগঞ্জ’ জেলার নামকরণ সেই রাজা লক্ষ্মী নারায়ণ জিউর মন্দিরের দেবোত্তর সম্পত্তি দখলের অভিযোগ উঠেছে সিটি মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে।
বুধবার বিকেলে দেবোত্তর সম্পত্তি (জিউস পুকুর) অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে উদ্ধারের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান পরিষদ ও পূজা উদ্‌যাপন পরিষদ। কর্মসূচিতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে কয়েক হাজার নর-নারী অংশগ্রহণ করেন।
তাদের এই দাবির প্রতি সংহতি জানিয়ে মানব বন্ধনে যোগ দেন বাংলাদেশ পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক রাষ্ট্রদূত নিম চন্দ্র ভৌমিক , সাধারণ সম্পাদক এড.নির্মল চ্যাটার্জি, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড.খোকন সাহা, ৭১’এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা সভাপতি চন্দন শীল।
বক্তারা বলেন, ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করা বা মসজিদের জায়গা দখল করা যেমন দুর্বৃত্তের কাজ, তেমনি মন্দিরের সম্পত্তি দখল করাও দুর্বৃত্তদের কাজ।
বক্তারা মেয়র আইভীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রচলিত আইনে দেবোত্তর সম্পত্তি যেখানে হস্তান্তর বা বিক্রি করা নিষিদ্ধ, সেখানে জাল দলিল করে দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করার অপচেষ্টা করছেন মেয়র আইভী ও তার পরিবার। আমরা এই আগ্রাসন থেকে রক্ষার জন্য আদালতের শরণাপন্ন হয়েও হুমকি ধমকির শিকার হচ্ছি। আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক, সংবিধানই আমাদের অধিকার দিয়েছে নিজের স্বার্থ রক্ষার। তাই আমরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছি । আমরা বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে হলেও দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষা করবো।
স্মারকলিপিতে বলা হয়, আমরা ব্যক্তিগত সম্পত্তি রক্ষার জন্য কখনোই আপনার দ্বারস্থ হোতাম না। কারণ আপনার নেতৃত্বে এদেশে এখন আইনের শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত। কিন্তু দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার জন্য আইনের দ্বারস্থ হয়েও আজ আমরা অসহায়, আমরা নিরাপত্তাহীন। আমরা এদেশের শান্তিপ্রিয় নাগরিক হিসেবে ,আপনার নেতৃত্বে অবিচল আস্থা রেখেই আপনার দ্বারস্থ হয়েছি। কারণ, এই দেবোত্তর সম্পত্তিটির বর্তমান মূল্য ১০০কোটি টাকার উপরে হলেও একে ঘিরে লাখো লাখো সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অনুভূতির কোন মূল্য নির্ধারণ করা যাবে না।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button