sliderস্থানীয়

মায়ের সাথে অভিমান করে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

এস এম জীবন রায়হান, শরীয়তপুর : শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় মায়ের সাথে অভিমান করে সুমাইয়া আক্তার (১৫) নামের নবম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে নড়িয়া উপজেলার ঘড়িসার ইউনিয়নের বাড়ৈপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, নিহত সুমাইয়া বাড়ৈপাড়া গ্রামের ইমান হোসেন মোল্লার কন্যা এবং পন্ডিতসার শহীদ নজরুল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্র জানায়, ঢাকা নারায়নগঞ্জের তালহা নামের একটি ছেলের সাথে সুমাইয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমিকের সাথে ফোনে কথা বলা নিয়ে মা ইসমতারা বেগমের সাথে শনিবার রাতে কথাকাটাকাটি হয় সুমাইয়ার। কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সুমাইয়ার ব্যাবহৃত ফোনটি ভেঙে ফেলেন মা ইসমতারা। রোববার সকালে সুমাইয়ার মা ইসমতারা বেগম স্থানীয় হাসপাতালে যান এবং ছোট দুই ভাই ও বোন স্কুলে যায়। এসময় সুমাইয়া একা ঘরে আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে মৃত কিশোরীর মা ইসমতারা জানান, একটি ছেলের সাথে রং নাম্বারে পরিচয় হয়ে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলো সুমাইয়া। রাত জেগে সেই ছেলের সাথে কথা বলতো সে। এ নিয়ে গতকাল রাতে কথা কাটাকাটি করে আমি ওর মোবাইল ভেঙে ফেলি। আজ সকালে আমি বড় মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে গেলে একা ঘরে গলায় ফাঁস দেয়।

এ ব্যাপারে নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে এটি আত্মহত্যা। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button