sliderস্থানীয়

মানিকগঞ্জে কারাহিসাব রক্ষক হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ২

শফিকুল ইসলাম সুমন, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জে ঈদের দিন উদ্ধার হওয়ার কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের হিসাব রক্ষক শহিদুল ইসলামের হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে।
রোববার (২৩ জুন) দুপুরে মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান এই তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে শনিবার (২২ জুন) সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার শ্যামনগর গ্রামের আনিস শেখের ছেলে মিস্টার আলী (২৩) ও একই গ্রামের এখলাছ শেখের ছেলে মো.শাহীন(১৮)।

নিহত কারা হিসাব রক্ষক শহিদুল ইসলাম খানের বাড়ি সিরাজগঞ্জের সদর উপজেলার ভাজনদাসগাথী এলাকায়। তিনি মানিকগঞ্জ জেলা কারাগারে চাকরি করা অস্থায় স্বপরিবারে মানিকগঞ্জ শহরের গঙ্গাধরপট্টি এলাকায় একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন।
কাশিমপুর কারাগারে কেন্দ্রীয় কারাগারে বদলি হলেও তার পরিবার মানিকগঞ্জেই থাকতো।
পুলিশ সুপার জানান, আসামি মিস্টার আলী শুকতারা পরিবহন নামে একটি বাসের চালক। আর শাহীন ছিলেন হেলপার। তারাসহ আরও তিনজন ডাকাতির পরকল্পনা নিয়েই ঈদের আগের দিন ১৬ জুন রাতে গাবতলী থেকে বাসে যাত্রী ওঠান। নবীনগর বাসস্ট্যান্ড থেকে কাশিমপুর কারাগারের হিসাবরক্ষক মানিকগঞ্জে বাসায় আসার উদ্দেশ্যে ওই বাসে ওঠেন। বাসটি মানিকগঞ্জে পৌছানোর আগেই বাসের অন্যান্য যাত্রীরা তাদের গন্তব্যে নেমে যান। বাসে থাকেন শুধু শহিদুল ও আরেক যাত্রী।
পরিকল্পনা অনুযায়ী বাসচালক ও হেলপারসহ পাঁচ ডাকাত ওই যাত্রীকে মারধর করে টাকা-মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। মানিকগঞ্জ সদরের ধলেশ্বরী সেতুর আগে অজ্ঞাত ওই যাত্রীকে বাস থেকে ফেলে দেন তারা। পরে ধলেশ্বরী সেতুতে ওঠার পর বাসে থেকে একই কায়দায় ফেলে দেওয়া হয় শহিদুল ইসলামকে। এসময় তিনি সেতুর নিচে পড়ে প্রাণ হারান। ঈদের দিন (১৭ জুন) সকালে ৯৯৯ এ খবর পেয়ে ধলেশ্বরী সেতুর নিচ থেকে শহিদুলের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button