sliderস্থানীয়

মহাদেবপুরে বৈদ্যুতিক মিটার চোর চক্রের সদস্য আটক

মহাদেবপুর প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুরে অভিযান চালিয়ে আন্ত:জেলা বৈদ্যুতিক মিটার চোর চক্রের এক সক্রিয় সদস্য নুর ইসলামকে (২৭) আটক করেছে পুলিশ।
নুর ইসলাম নওগাঁ সদর উপজেলার চাকলা গ্রামের মৃত খয়রুল ইসলামের ছেলে।

বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তাকে আটক করা হয়। তার দেয়া তথ্যমতে মাটির নিচে পুতে রাখা দুটি চুরি করা মিটারও উদ্ধার করা হয়।

মোজাফফর হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৩ ডিসেম্বর রাতে উপজেলার খাজুর ইউনিয়নের গুপিনাথপুর মোড়ে নেজামুল ইসলামের চাল কল থেকে একটি, চাঁন্দাশ ইউনিয়নের হরিপুরের আব্দুল কুদ্দুসের চাল কল থেকে একটি, ২৫ ডিসেম্বর রাতে উপজেলা সদরের ঘোষপাড়ার মোড়ে নারায়ন চন্দ্রের লেদ মেশিনের দোকান থেকে একটি ও খাজুর ইউনিয়নের কুঞ্জবন বাজারের বিপুল চন্দ্রের লেদ মেশিনের দোকান থেকে একটিসহ মোট চারটি বৈদ্যুতিক মিটার চুরি হয়। চোরেরা একটি কাগজে মোবাইলফোন নম্বর লিখে মিটারের বক্সে রেখে যায়। নেজামুল ইসলাম এ ব্যাপারে ২৭ ডিসেম্বর মহাদেবপুর থানায় মামলা করলে তদন্তে শুরু হয়।

নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হকের নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) গাজিউর রহমান পিপিএমের সার্বিক সহযোগিতায় মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়ব্রত পাল, মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফ্ফর হোসেন, ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদসহ অন্য অফিসার ও ফোর্সের সমন্বয়ে একটি চৌকশ দল গঠন করে রাতেই নওগাঁ সদর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মূল আসামিকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে কাগজে লেখা নম্বরের মোবাইলফোনও উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি এসব মিটার চুরির কথা স্বীকার করেন। তার দেয়া তথ্যমতে মাটির নিচে পুতে রাখা অবস্থায় দুটি চোরাই মিটার উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ একটি আন্ত:জেলা মিটার চোর চক্রের সন্ধান পায়। চক্রের অন্য সদস্যদের আটকের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানানো হয়।

ভুক্তভোগীরা জানান, চোরেদের রেখে যাওয়া মোবাইলফোন নম্বরে কথা বললে তাদের কাছে মিটার ফেরৎ দেয়ার জন্য চাঁদা দাবি করা হয়। চোরেরা এদের একজনের কাছ থেকে বিকাশে তিন হাজার ৩০০ টাকা ও আরেক জনের কাছ থেকে পাঁচ হাজার ২০০ টাকা হাতিয়ে নেয়।

Related Articles

Back to top button