sliderরাজনীতিশিরোনাম

ভোট বর্জনের আহ্বানে সাড়া দেয়ায় জনগনকে এবি পার্টির অভিনন্দন

পতাকা ডেস্ক: এবি পার্টির আহবানে সাড়া দিয়ে প্রহসনের নির্বাচন বর্জন করে নিজেদের স্বেচ্ছায় লকডাউনে রাখায় জনগণকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবি পার্টির আহবায়ক এএফএম সোলায়মান চৌধুরী।
আজকের নির্বাচনকে প্রহসন আখ্যা দিয়ে এ দিনকে কালো দিন ঘোষনা করেছিল এবি পার্টি। আহ্বান করেছিল স্বেচ্ছায় লক ডাউন পালন কর্মসূচি করার জন্য। এবি পার্টির আহ্বানে অভূতপূর্ব সাড়া দিয়ে জনগণ ভোট দিতে যায়নি, রাস্তায় বের হয়নি। রাস্তাঘাট ছিল জনশূন্য। কেন্দ্রগুলো ছিল ফাঁকা।


দুপুর একটায় দলীয় কার্যালয়ে এক তাৎক্ষণিক মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এই ধন্যবাদ জানান তিনি। তিনি বলেন, আজ ভোট কেন্দ্রে রয়েছে সরকারের কর্মকর্তা কর্মচারী ও আওয়ামীলীগের ক্যাডার বাহিনী। ভোটারদের দেখা যাচ্ছে না। দেখা যাচ্ছে কিছু কুকুর, বানর, ভেড়া ছাগল। জনগণ এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির যুগ্ম আহবায়ক প্রফেসর ডাঃ মেজর অবঃ আব্দুল ওহাব মিনার, অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম ও সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু।
মেজর অব. মিনার বলেন, আজ কালো দিন। আমরা গতকাল দেশবাসীকে আহবান জানিয়েছিলাম তারা যেন এই প্রহসনের নির্বাচনে অংশ না নেয়। জনগন আমাদের আহবানে সাড়া দিয়েছেন, তাদের ধন্যবাদ জানাই।

অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেন, দেশের পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে বিমান হামলার সাইরেন বাজালে যেমন মানুষ ঘরে আবদ্ধ থাকে, শুনশান নিরবতা তেমনি আজকের রাস্তা ঘাটও জনমানবশুন্য। আওয়ামীলীগের কিছু দালাল ও সুবিধাভোগী বেওয়ারিশ কুকুর, বানরের সাথে ভোট কেন্দ্রে গিয়েছে। সবচেয়ে লজ্জাজনক ব্যাপার হচ্ছে এই একতরফা নির্বাচনের মধ্যেও নির্লজ্জ আওয়ামীলীগ ব্যালট পেপারে সিল মারার উৎসবে মেতেছে।

মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, শহীদ ফেলানী দিবসে আজ একটি প্রহসনের একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বকেও কাঁটাতারে ঝোলানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। আমাদের আহবানে সাড়া দিয়ে জনগণ এই দুরাচার সরকারের তামাশার নির্বাচনে অংশ নেয়নি। আমরা দেখলাম ভোটকেন্দ্রে আজ আওয়ামীলীগের বহু লোকও অনুপস্থিত। এক জায়গায় দেখলাম বানরের দল নাচানাচি করছে। আমরা জনগকে ধন্যবাদ জানাই এই নীরব প্র্যাখ্যানের জন্য।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button