sliderরাজনীতিশিরোনাম

ভোটাধিকার হরণকারীরা রাষ্ট্রভাষার অধিকার কেড়ে নেয়া স্বৈরশাসকদের উত্তরসূরী-এবি পার্টি

পতাকা ডেস্ক: মহান একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছে আমার বাংলাদেশ পার্টি ‘এবি পার্টি’। দলের নেতা কর্মীরা রাত ১২ টা ১ মিনিটে বিজয় নগরস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাস্বরূপ ফুল, ফেস্টুন ও ব্যানার সহকারে একটি মৌন মিছিল বের করে। এবি পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, বিএম নাজমুল হক ও সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জুর নেতৃত্বে মৌন শোক মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মধ্যরাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে পৌঁছায়। এর আগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে সন্ধ্যা ৭ টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে দলটি। অনুষ্ঠানে দেশের গান, আবৃত্তি ও গীতি আলেখ্য পরিবেশন করেন খ্যাতিমান শিল্পী ও আবৃত্তিকারগণ।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধাজ্ঞাপনকালে এবি পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেন, একুশের বইমেলা ছিল আমাদের বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের প্রাণের মেলা। কিন্তু আজ সেখানে দলীয় সরকারের মোসাহেব আর বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের শত্রুদের দখলস্বত্ব কায়েম হয়েছে।
সেখানে ভিন্নমত বা সরকার বিরোধী মতের লেখকদের বই স্থান পায়না। তিনি হতাশা প্রকাশ করে বলেন; যে লক্ষ্য নিয়ে ভাষা শহীদেরা জীবন দিয়েছিলো আজ বাহাত্তর বছর পর এসেও তা বাস্তব রুপ পায়নি। দেশের জ্ঞান চর্চার স্বার্থে যে সমস্ত পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন ছিলো তা হয়নি। সেই লক্ষ্য পূরণেই এবি পার্টি এমন একটি রাষ্ট্র বিনির্মান করতে চায় যেখানে বাংলায় জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চায় কোন বাধা থাকবেনা বলে তিনি প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।


সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু মহান ভাষা আন্দোলনে আত্মদানকারী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন অধিকারের জন্য বুক চিতিয়ে মাথা উঁচু করে কথা বলাই একুশে ফেব্রুয়ারির শিক্ষা। আজকে যারা আমাদের ভোটের অধিকার হরণ করেছে তারা মূলত: রাষ্ট্রভাষার অধিকার কেড়ে নেয়া স্বৈরশাসকদের উত্তরসূরী। ২৮ অক্টোবর ২০২৩ ও ৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারির মধ্যে পার্থক্য শুধু এতটুকুই যে তখন ১৪৪ ধারা জারী করেছিল এবং মিছিলে গুলী চালিয়েছিল উর্দূভাষী স্বৈরশাসক আর এখন আমাদের সমাবেশে হামলা করছে, গুলী করছে বাংলাভাষী আওয়ামী স্বৈরাচার। তিনি মহান একুশের সংগ্রামী অঙ্গীকার বুকে ধারণ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সবাইকে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান।
শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন এবি পার্টির যুগ্ম সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, এবি যুবপার্টির আহবায়ক এবিএম খালিদ হাসান, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আলতাফ হোসেইন, মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহ্বায়ক গাজী নাসির, মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব সেলিম খান, দক্ষিণের যুগ্ম সদস্য সচিব সফিউল বাসার, যুবনেতা তোফাজ্জল হোসেন রমিজ, দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হালিম নান্নু, মহানগর উত্তরের যুগ্ম সদস্য সচিব আব্দুর রব জামিল, ছাত্রপক্ষের আহবায়ক মোহাম্মদ প্রিন্স, সহকারী অর্থ সম্পাদক সুমাইয়া শারমিন ফারহানা, কেন্দ্রীয় নেতা শাহজাহান বেপারী, শাহিনুর আক্তার শিলা, নাসির আব্দুল্লাহ, ফেরদৌসী আক্তার অপি, রুনা হোসাইন, এডভোকেট সরন চৌধুরী, মশিউর রহমান মিলু, আমেনা বেগম, ইঞ্জিনিয়ার কৌশিক, রিপন মাহমুদ সহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button