sliderস্থানীয়

ফরিদপুরে সন্তানের বিরুদ্ধে পিতার মানববন্ধন

বিধান মন্ডল, (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে চলাচলের পথে বাধাঁ সৃষ্টি করে পথ বন্ধ ও মিথ্যা মামলা করার প্রতিবাদে লম্পট, মামলাবাজ ও অবাধ্য সন্তানের বিরুদ্ধে মনববন্ধন করেছে পিতা ও এলাকাবাসী। 

আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গী গ্রামে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে এলাকার শতাধিক নারীপুরুষ অংশ নেন। 

মানববন্ধন চলাকালে ভুক্তভোগী বৃদ্ধ পিতা- মো. মোসলেম খান(৫২) জানান, আমার বড় সন্তান মো. মোস্তফা কামাল মুক্তাদির আমার মেঝ ছেলের উপড় জমি সংক্রান্ত জোরপূর্বক ঝামেলা করিয়া আসিতেছে। আমি আমার মেঝ ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন মুসা’কে চলাচলের জন্য ১১নং চরভদ্রাসন মৌজার দিয়ারা ১০১৫ নং খতিয়ানের ৭৫৫৮ নং দাগের ৬ শতক সম্পত্তি হেবা হিসেবে দান করি। দুঃখের বিষয় আমার এই বড় ছেলে দুইবার আমাকে মারধর করে এবং আমি জীবিত থাকা সত্বেও ৬ শতক জমি চলাচলের পথ বারবার বন্ধ করিয়া দেয়। এব্যাপারে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদ্বারা তাকে কখনও সালিশ মিমাংসায় বসাইতে পারি নাই। শুধু তাই নয় চলাচলের পথে বাধাঁ সৃষ্টি করার বিষয়ে স্থানীয়রা শুনামেলা করতে গেলে সে আমার মেঝ ছেলে, তার বউ, ছোট ছেলে ও স্থানীয় আরো অনেকের বিরদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করিয়া আসিতেছে। 
মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পিতা- মো. মোসলেম খান ছাড়াও আরো বক্তব্য দেন, তার স্ত্রী খালেদা বেগম, স্থানীয় বাসিন্দা মো. ফজল মোল্যা ও মো. আলম। 

বক্তারা বলেন, মুক্তাদিরের বাবা তার মেঝ ছেলে ও এলাকাবাসীর মসজিদে নামাজ পড়তে আসার চলাচলের জন্য রাস্তাটি দেন। কিন্তু সে রাস্তাটি চলাচলের পথে বাধাঁ সৃষ্টি করে পথ বন্ধ করে দেয় এবং এব্যাপারে কেউ কিছু বলতে গেলে সে তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে। 

এব্যাপারে মোস্তফা কামাল মুক্তাদির জানান, রাস্তার জায়গাটি আমি আমার এক কাকার কাছ থেকে ক্রয় করি। কিন্তু আমার মেঝ ভাই আমার জায়গায় মাটি ও গাছপালা কাটতে আসে। আমি এব্যাপারে বাধাঁ দিলে সে আমাকে মেরে হাত ভেঙে ফেলে। আমি আমার কেনা সম্পত্তিতে চলাচলের রাস্তা দিবো কেন।

Related Articles

Back to top button