sliderস্থানীয়

ফরিদপুরে নিহতদের বাড়ি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

রেলমন্ত্রীকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের মধুখালীতে মন্দিরে কথিত অগ্নিসংযোগের অভিযোগে নির্মমভাবে পিটিয়ে দুই ভাই নিহতের ঘটনায় নিহতদের বাড়িতে যেয়ে সমবেদনা জানান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মো: আব্দুর রহমান। এ সময় তিনি জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক বিচারের আশ্বাস দেন। পরে তিনি রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিমকে সাথে নিয়ে ডুমাইন ইউনিয়নের পঞ্চপল্লী গ্রামে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, যেভাবে তাদের পিটিয়ে মারা হয়েছে তা আদিম যুগের বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। তিনি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের চিহ্নিত করে বিচার করা হবে বলে জানান।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যার পরে মন্ত্রী নওয়াপাড়ার চোপেরঘাট গ্রামে পঞ্চপল্লীতে নিহত আরশাদুল ও আসাদুলের বাড়িতে যান। মন্ত্রী তাদের মা-বাবার সাথে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

তিনি এ সময় তাদের ঋণ পরিশোধের আশ্বাস দেন এবং জীবিকা নির্বাহের জন্য একটি ব্যবস্থা করে দেবেন বলে জানান। সেখানে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় শেষে মন্ত্রী পঞ্চপল্লী গ্রামে যান এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশে তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মো: আব্দুর রহমান বলেন, যারা এ ঘটনাগুলো ঘটিয়েছে তাদের কোনো জাত নাই তাদের কোনো ধর্ম নাই, তারা মানুষ নামের কলঙ্ক। এ ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে বিচারের আওতায় আনতে হবে। তিনি বলেন দ্রুত বিচার আইনে এ ঘটনা বিচার করা হবে।

মৎস্যমন্ত্রী আব্দুর রহমান বলেন, এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার হবে। অপরাধী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। কাউকে পরিস্থিতির সুযোগ নিতে দেয়া হবে না। তিনি জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে সাহসিকতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলায় ধন্যবাদ জানান এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ভিত্তিতে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে সকলে মিলেমিশে একসাথে থাকার আহ্বান জানান।

অপরদিকে রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম বলেন, এটি একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। তদন্তের মাধ্যমে যারা দায়ী তাদেরকে অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে।

এ সময় ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি সৈয়দ নুরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারণ সম্পাদক এসএম ইশতিয়াক আরিফ, মধুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামনুন রশীদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button