sliderপ্রবাসশিরোনাম

প্যারিসে সাফ’র ৪র্থ বাণিজ্য মেলা ও ঈদবাজার : বাংলাদেশিদের মিলমমেলায় ঐতিহাসিক রিপাবলিক চত্বর

হেলিয়ান্থুস, ঢাকা : ৪র্থ বারের মতো Solidarités Asie France (SAF) আয়োজিত বাণিজ্য মেলা: ঈদ বাজার ২০২৪ সালের ২৬ মে প্লেস দে লা রিপাবলিক-এ অনুষ্ঠিত হয়।

এই মেলায় ৭০ টিরও বেশি বাংলাদেশি, মরিশিয়ান প্রভৃতি স্ট্যান্ড ছিল সব থেকে চমক লাগানো এবং ভালোলাগার বিষয় ছিল এই মেলায় নারী উদ্যোক্তা বেশি ছিল এবং তারা ফ্রান্সের মাটিতে যে অনেকে এগিয়ে যাচ্ছে সেটাই তার প্রমাণ করছে।

SAF এই মেলার আয়োজন করে, বাংলাদেশী পোশাক, গহনা, খাবার ফ্রান্সে বা ফ্রান্সে বসবাসকারী বিদেশীদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য এবং নারী উদ্যোক্তাদের আরো উৎসাহ দেয়ার জন্য।

সকাল দশটায় এই অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন সাফের প্রেসিডেন্ট Nayan NK,সহ সাফের মেম্বার এবং স্বেচ্ছাসেবীরা
এই মেলায় উপস্থিত ছিল ১৮তম প্যারিসের ডেপুটি মেয়র, ফরাসি কর্তৃপক্ষের লোকজন সহ বাংলাদেশি নেতৃবৃন্দ এবং সমস্ত স্তরের মানুষ।


সাফের প্রেসিডেন্ট Nayan NK জানান “এই ধরনের মেলা আয়োজন করার উদ্দেশ্য হলো ফ্রান্সের মানুষদেরকে বাংলাদেশের সাথে পরিচয় করে দেওয়া এবং ফ্রান্সের জনগণ, অথরিটি ফ্রান্সের, কাউন্সিলর, ডিপিটি, এমপি সবাই যাতে করে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিকে ভালো করে চিনতে পারে জানতে পারে এবং সব ধরনের উদ্যোক্তাদের আর উৎসাহ করা।
আরো বলেন, ঈদকে সামনে রেখে স্বদেশীদের হাতে দেশীয় পণ্য তুলে দেয়া এবং উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও প্রসারের লক্ষেই মূলত এ মেলার আয়োজন। তিনি বলেন বাংলাদেশিদের পাশাপাশি ফ্রান্সে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের মানুষের নিজস্ব সংস্কৃতির আদান প্রদান ও মেলবন্ধনকে আরো সূদৃঢ় করার প্রয়াস নিয়েই মূলতঃ আমাদের এই উদ্যোগ।”

মেলায় আগত দর্শনার্থীদের অনেকেই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন,’পরবাসের যান্রিক জীবনে আমরা আমাদের শেকড়কে অনেক সময় ভুলে যেতে থাকি।
মেলার সুবাদে পরিচিতজনদের সঙ্গে বহু বছর দেখা করতে পেরেছি। মনে হচ্ছে এ যেন বিদেশের মাটিতে একখণ্ড বাংলাদেশ।’

বাণিজ্য মেলা সারাদিনটাই ছিল অনেক আনন্দের একটা দিন, যেখানে সারাদিন সব ধরনের মানুষের জন্য ছিল নানা কর্মকাণ্ড। এই বাণিজ্য মেলায় সকাল থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের অ্যাক্টিভিটি ছিল যেমন যারা স্টল দিয়েছিল দম্পতিদের জন্য একটা খেলা, ছিল দুপুরে বাচ্চাদের জন্য যেমন খুশি তেমন সাজো, সাত চারা, মহিলাদের জন্য সাত চারা এবং বল পাসিং এবং পুরুষদের জন্য ছিল বল পা দিয়ে ঝুড়িতে ফেলা।
আরো চমক লাগানোর বিষয় ছিল সাফের সদস্য এবং স্বেচ্ছাসেবীরা মিলে একটি নাটক পরিবেশনা করে। ছিল বাংলাদেশের সাংস্কৃতিকে উপস্থাপনা করার জন্য বাংলার পুথি পাঠ।

এই মেলার স্টলের সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে বাড়ছে মানুষের আশা, মানুষ অনেক আশা করে থাকে এই মেলাটির জন্য।
যারা এত কষ্ট করে বাংলাদেশে ছেড়ে চলে এসেছে ফ্রান্সের মাটিতে এবং এই মেলাতে এসে তারা খুঁজে পেয়েছিল ফ্রান্সের বুকে ছোট একটা বাংলাদেশ।

সাফের সমস্ত মেম্বার এবং স্বেচ্ছাসেবকদের অসংখ্য ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি ইভেন্ট আয়োজন করার জন্য. সাফের সদস্য এবং মেম্বাররা অনেক কষ্ট করে এই দিন আয়োজন করে থাকে এবং তারা ভবিষ্যতে আরো আয়োজন করবে বলে জানিয়েছেন।

SAF এই ধরনের ইভেন্টের আয়োজন করতে থাকবে যা সবার জন্য সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button