sliderখেলাশিরোনাম

প্যারিসে ফ্রান্স ও মরক্কোর সমর্থকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ, গ্রেফতার ৭৪

প্যারিসের রাস্তায় ফ্রান্স ও মরক্কোর ফুটবল সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষ ঘটেছে পুলিশের। এ ঘটনায় অন্তত ৭৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
স্থানীয় সময় শনিবার রাতে শহরের শানজ এলিজেতে এ সংঘর্ষ ঘটে বলে জানিয়েছে লে পার্সিয়ান। সংবাদমাধ্যমটি জানায়, সংঘর্ষ থামাতে সমর্থকদের ওপর টিয়ারশেল ছুঁড়েছে পুলিশ।
কাতার ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২-এর সেমিফাইনালের টিকিট পাকা হতেই প্যারিসের রাস্তায় সেলিব্রেশন করছিলেন আফ্রিকান রূপকথা লেখা মরক্কো ফুটবল দলের সমর্থকেরা। খানিক বাদেই তাদের সাথে যোগ দেয় ইংল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ চারে ওঠা ফ্রান্সের সমর্থকরাও। তবে তাদের সেই উচ্ছ্বাস বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেয়নি পুলিশ। কারণ এরপরেই শুরু হয় ত্রিমুখী সংঘর্ষ।
শনিবার রাতে মরক্কো এবং পর্তুগালের মধ্যকার ম্যাচের পরপরই হাজার হাজার মরক্কান সমর্থক বিখ্যাত প্যারিসিয়ান এভিনিউয়ের সামনে পতাকা হাতে স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় প্যারিসের পুলিশ সদস্যরা হুইসেল বাজিয়ে তাদের সতর্ক করতে থাকেন। কিন্তু কে শোনে কার কথা। উল্টো দিকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ফ্রান্সের জয়ের পর ফ্রেঞ্চ সমর্থকরাও যোগ দেয় তাদের সাথে। রয়টার্সের টিভি ফুটেজে দেখা গেছে, মরক্কো ও ফ্রান্সের জয়ে আনন্দ উল্লাসকারীরা দোকান ভাঙচুর করছে এবং পুলিশের সাথে মারামারি করছে।
চ্যাম্পস এলিসিসের কাছাকাছি অ্যাভিনিউ ডি ফ্রিডল্যান্ডে আগুনও দেখা যায়। পরে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা তাদের ওপর কাঁদানে গ্যাস ছোড়েন। স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, সংঘর্ষের সময় বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে আতশবাজি নিক্ষেপ করছে। পুলিশের দিকে কাঠ ও পাথরের বড় টুকরো ছুড়ে মারছেন তারা। বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেলের আগুনে পোড়ার ছবি দেখা গেছে। চ্যাম্পস এলিসির কাছের অ্যাভিনিউ ডি ফ্রিডল্যান্ডেও আগুন দেখা যায়।
ডেইলি মেইল জানিয়েছে, কাতারে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ফ্রান্সের ২-১ গোলে জয়ের চূড়ান্ত বাঁশি বাজলে প্রায় ২০ হাজার মানুষ প্যারিসের রাস্তায় নেমে আসে। এ সময় পুলিশের সাথে তাদের সংঘর্ষ বাধে এবং সমর্থকরা আরো সহিংস হয়ে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটায়। বিজয় উদযাপন করতেদুই দলের সমর্থকরা নেমে আসে রাস্তায়। এক সময় তাদের উন্মাদনার মাত্রা সীমা ছাড়িয়ে যায়।
এলিজের প্যারিসিয়ান অ্যাভিনিউতে দোকানপাট ভাঙচুরও করেন তারা। রয়টার্সের এক টিভি ফুটেজে দেখা গেছে, বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতিতে পতাকা উড়িয়ে এবং হর্ন বাজিয়ে বিজয় উদ্‌যাপন করছেন সমর্থকরা। উল্লাসের একপর্যায়ে দোকানপাট ভাঙচুর করছেন তারা এবং পুলিশের সাথে তাদের সংঘর্ষ হচ্ছে।
শানজ এলিজের কাছে অ্যাভিনিউ দে ফ্রিদলঁদ এলাকায় অগ্নিসংযোগের ঘটনাও দেখা গেছে। বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল আগুনে পুড়ছে। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ১৫ ডিসেম্বর মরক্কোর মুখোমুখি হবে ফ্রান্স। এই দুই দলের সমর্থকরা একত্রে জয় উদযাপন করলে সংঘর্ষ বেঁধে যাওয়ার শঙ্কা থাকেই। মূলত সে কারণেই আগাম সতর্কতা হিসেবে তাদের আলাদা করতেই ছত্রভঙ্গ করে পুলিশ।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button