sliderস্থানীয়

পুলিশ হেফাজতে ব্যবসায়ী মৃত্যুর অভিযোগে ২ এএসআই ক্লোজড

গাজীপুরে পুলিশের নির্যাতনে ব্যবসায়ী রবিউল ইসলামের (৪০) মৃত্যুর অভিযোগে গাজীপুর মেট্রোপলিটন বাসন থানার দুই এএসআইকে ক্লোজড করা হয়েছে।

অভিযুক্তরা হচ্ছেন বাসন থানার এএসআই মাহবুব ও এএসআই নুরুল ইসলাম।

গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের উপ কমিশনার (অপরাধ) আবু তোরাব মোহাম্মদ শামসুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে এই ঘটনাটি তদন্তের জন্য গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো: দেলোয়ার হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এদিকে ব্যবসায়ীর মৃত্যুতে ঢাকা-ময়মনসিংহ ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী। এ সময় তারা মহাসড়কে দুটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ওই ব্যবসায়ীর মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যের বিচারের দাবিতে এই বিক্ষোভ করে।

নিহত রবিউল গাজীপুর মহানগরীর ভোগরা বাইপাস পেয়ারা বাগান এলাকার বাসিন্দা। তিনি পেশায় একজন সুতা ব্যবসায়ী।

অবশ্য পুলিশের দাবি, নির্যাতনে নয়, সড়ক দুর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, মোবাইলে জুয়া খেলার অভিযোগে শনিবার রাতে চারজনকে আটক করে গাজীপুরের বাসন থানার পুলিশ। পরদিন তিনজনকে ছেড়ে দিলেও ব্যবসায়ী রবিউল ইসলামকে থানায় আটকে রাখে। মঙ্গলবার রাতে বাসন থানার একদল পুলিশ ওই ব্যবসায়ীর বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীর কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে আসে। পরে পরিবার জানতে পারে রবিউল মারা গেছেন।

বুধবার সকালে এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষিপ্ত এলাকাবাসী লাঠি নিয়ে প্রথমে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়ক এবং পরে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবরোধ সৃষ্টি করে। একপর্যায়ে তারা ওই মহাসড়কে মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে বগুড়া বাইপাস মোড়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেয় বিক্ষিপ্ত জনতাদের। প্রায় এক ঘণ্টা পর ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক এর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

উপ-কমিশনার আবু তোরাব মো: শামসুর রহমান জানান, গত রাতে স্বজনদের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেয়া হলে বাসায় ফেরার পথে গাড়িচাপায় তিনি মারা যান। তবে এলাকাবাসীর অভিযোগে তদন্ত করে দেখা হবে।

সূত্র : ইউএনবি

Related Articles

Back to top button