sliderস্থানীয়

পিরোজপুরে কাঁচা বাজারগুলোর সবজির দাম এখন আকাশ ছোঁয়া

পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুরে রেমাল পরবর্তী তাপদাহের পরে কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে কৃষকরা সবজি উৎপাদনে ব‍্যাহত হওয়ায় স্থানীয় বাজারে সবজির দাম চরমে পৌঁছেছে।

কৃষকরা বৃষ্টিতে ক্ষেত থেকে সবজি তুলতে না পারায় অনেক সবজি নষ্ট হয়ে সবজির সরবরাহ কমে গি‌য়ে দাম বেড়েছে বলে জানা যায়। সবজির দোকানীরা চাহিদা অনুযায়ী ক্রেতাদের সবজি দিতে পারছে না।

স্থানীয় সবজি বাজার ঘুরে দেখা যায়, দোকানীরা গত এক মাসের ব্যবধানে প্রত্যেকটি সবজির দাম ১০ থেকে ৫০ টাকা বেড়ে গেছে। কাঁচা মরিচ, বেগুন, ঝিঙ্গাসহ অনেক সবজির দাম কয়েক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

ব্যবসায়ীগন জানায়, স্থানীয় কৃষক যারা প্রতিদিন সকাল বেলা সবজি এনে আমাদের কাছে বিক্রি করতো তারা এই এক মাস পর্যন্ত বাজারে আসছেনা। তাপদাহের পরে টানা বৃষ্টির কারণে সবজির সরবরাহ অনেকটাই কমে গেছে। খুলনা, যশোর থেকে আনা হতো, বৃষ্টির কারণে গাড়ি ভাড়াও আগের তুলনায় অনেক বেশি দিতে হয়। অন্য দিকে এ সব পাইকারী বাজারেও দাম বেড়েছে, যার কারণে পাইকারী বাজার থেকে সবজি এনেও লাভ করা এখন খুবই কষ্টকর।

সবজি বিক্রেতা আমিনুল ইসলাম বলেন, বাজারে সবজি না আসায় আমরা প্রায়ই খালি হাতে ফিরে আসি। অনেক বছর ধরে এই বাজারে ব্যবসা করছি কিন্তু সবজির এত ঘাটতি এবং এত বেশি মূল্য বৃদ্ধি এর আগে কখনও দেখিনি ।

নাজিরপুরের কৃষক সুনিল চন্দ্র জানান, রোধ ও বৃষ্টিতে সবজি নষ্ট হওয়ায় ক্ষেতে কোন সবজি নেই। কয়েকজন ক্রেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা যায় বাজারে চাহিদা অনুযায়ী সবজি পাওয়া যায়না, যাও পাওয়া যায় তার মূল্য হাতের নাগালে না থাকায় ক্রয় করার আগ্রহ হারিয়ে যায়। পিরোজপুর বাজার ঘূরে আজকের যে দর দেখতে পাই তা হল
কাঁচা পেপে ৫৫ কুষি ৬৫ ঢেরস ৭০ মুলা ৬০ করল্লা ১২০ পোটল ৪০ আলু ৬০ কচুর গাটি ৮৫ কাকরোল আনাচ ৭৫ লাউ প্রতি পিচ ৭০ থেকে ৮০ কুমরা প্রতি কেজি ৪০ ঢেরশ ৭০ টাকা। সাধারণ মানুষের হাহাকার দেখতে পাই বাজারে। বাজারে লোকজনকে এ দোকান থেকে ওদোকান ঘূরতে দেখা যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button