sliderস্থানীয়

নিয়ামতপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রোববার (১৭ জুলাই) দুপুরে উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের উপরকৃড়া শালবাড়ী গ্রামের পূর্বমাঠে এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় ভূক্তভোগী জালাল উদ্দিন (৫৮) বাদী হয়ে ১৭ জনের বিরুদ্বেধ নিয়ামতপুর থানায় এ অভিযোগটি দায়ের করেন।
থানায় দায়ের করা জমির মালিকদের পক্ষ হতে ভূক্তভোগী জালাল উদ্দিনের অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের শেখপুর ও নরসিংহপুর মৌজার প্রস্তাবিত খতিয়ান নং- ৫৮, ৫৬/ ১৬, ২৭,৮/ ২৯,৯ এর দাগ নং- ৪৭, ১১৪, ও ১৭৪, ২১৩, ১৭৩, পরিমান-৪.২৩ এবং ১.৮১ মোট ৬.০৫ একর সম্পত্তি পৈত্রিকসূত্রে ঢাকার মতিঝিলের শান্তিনগরের মৃত- আব্দুস সালামের ছেলে তাহেরুল ইসলাম, মফিজুল ইসলাম, নাসিমুল ইসলাম, মেয়ে তাহেরা ও পাপড়িয়ার নিকট হতে ১৬/০৭/২০০৮ইং তারিখের দলিল নং-৪৬০৬ এবং ২০/০৭/২০০৮ তারিখের ৪৬৩৩-৪৬১০ নং দলিল মূলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সাতকানিয়া গ্রামের মৃত- আবুল হোসেনের ছেলে জালাল উদ্দিন, একই গ্রামের মৃত- ইউনুস আলীর ছেলে দুরুল হুদা, একই উপজেলা কোটনা গ্রামের মৃত- ইনতাজ আলীর ছেলে এনামুল হক ৬.০৫ একর সম্পত্তি ক্রয় করে বিক্রেতার নিকট বুঝিয়ে নিয়ে আজ অবধি ভোগদখল করে আসছে। হঠাৎ গত ১৭ জুলাই রবিবার বেলা ১১টায় প্রতিপক্ষের ভাড়াটিয়া ভূমিদর্স্যু উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের উপরকুড়া শালবাড়ীর আবুল হোসেনের ছেলে সাকিম, রুহুল, হুমায়ন, মোখলেছুর, একই গ্রামের ইদুর ছেলে মাহিদুর ও নাইমুল, রুহুলের ছেলে তসিকুল, হুমায়নের ছেলে সামাদ, নিয়ামতপুর সদর ইউনিয়নের নেহেন্দা বালুকাপাড়ার আশরাফুল ইসলামের ছেলে নাসিম, মাকলাহাট গ্রামের দোস্ততুল্লার ছেলে দবির, শিশ মোহাম্মাদের ছেলে জাহাঙ্গীর মেম্বর, কোচপাড়া গ্রামের আশর্ফাুল ইসলামের ছেলে পিন্টু, আমজাদের ছেলে সাদেক, মাকলাহাট গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে ডাপ্পু, ফতেপুর গ্রামের হাফেজের ছেলে মোহাম্মাদ আলী, বিজলী গ্রামের ওসমানের ছেলে লোকমান হোসেন, দোস্তপুরের আশরাফুল ইসলামের ছেলে জামাল পাওয়ার টিলার নিয়ে গিয়ে জমি চাষ করে দখলের চেষ্টা করে। সংবাদ পেয়ে জমির মালিক জালাল উদ্দিন ও তাদের অন্যান্য মালিকগণ ঘটনাস্থলে পৌছলে ভূমিদর্স্যুরা বিভিন্ন রকমের হুমকি ধুমকি প্রদান করে পালিয়ে যায়।
জমির মালিক জালাল উদ্দিন জানান, ১৯২০, ১৯৬২ এবং ১০৭২ সালের রেকর্ড মূলে উল্লেখিত জমির মালিক আব্দুস সালাম। আব্দুস সালাম মারা যাওয়ার পর তাদের ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে মালিক। তাদের কাছ থেকে আমিসহ অন্যান্যরা জমি ২০০৮ সালে ক্রয় করে এখন পর্যন্ত ভোগ দখল করে আসছি। হঠাৎ কোথা থেকে উটকো দলিল দেখিয়ে ভাড়াটিয়া ভূমিদর্স্যু লাগিয়ে জমি দখলের চেষ্টা করে।
বর্গাচাষী উপরকুড়া শালবাড়ী গ্রামের খোকন রানা, মুজিবুর রহমান বলেন, আমাদের জমির মালিক জালাল উদ্দিন। আমরা ২০০৮ সাল থেকে বর্গা চাষী হিসাবে জমিটি চাষ করে আসছি। হঠাৎ কোন কিছু না জানিয়ে ১৭ জুলাই রবিবার বেলা ১১টায় কিছু ভাড়াটিয়া লোক এসে জমি দখলের চেস্টা করে।
জমির মালিকানা দাবী করা বাদশার সাথে মুঠোফোনে যাগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায় নাই।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত লোকমান হোসেন বলেন, আমরা তো জমির মালিক না। জমির মালিক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার বজিনাথপুর গ্রামের মৃত- কায়েশ উদ্দিনের স্ত্রী আনোয়ারা ও ফসির উদ্দিনের স্ত্রী সায়েরা। সায়েরার নাতি বাদশা জমির মালিকানা করে। আমরা তার সাথে জমিতে গিয়েছিলাম।
এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Related Articles

Back to top button