sliderস্থানীয়

নিয়ামতপুরে প্রচণ্ড তাপদাহে বিপর্যস্ত জনজীবন

জনি আহমেদ,নিয়ামতপুর(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ বৃষ্টিহীন আষাঢ় পেরিয়ে শ্রাবণ এলেও ভারী বৃষ্টির দেখা নেই নওগাঁ নিয়ামতপুরে। অনাবৃষ্টি, প্রচণ্ড গরম ও তাপদাহে বিপর্যস্থ নিয়ামতপুরের জনজীবন। বেশ কিছুদিন যাবৎ সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে সূর্যের তীব্র তাপদাহ। এতে প্রচণ্ড গরমে অস্বস্তিতে পড়েছে মানুষসহ সকল প্রাণীকুল। এছাড়াও মাঠে পানি না থাকায় আমন মৌসুমের চাষাবাদ বন্ধ রয়েছে। যেগুলো আমন ধান লাগানো হয়েছে সেগুলো বাঁচানোর জন্য,সেচ পাম্প এর উপর নির্ভর করছে, রোদের তাপ থেকে বাঁচতে সবাই খুঁজছে একটু ছায়ার আশ্রয়। গরমের কারণে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপজেলার রাস্তাঘাট প্রায় জনশূন্য হয়ে পড়ছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না। নিয়ামতপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক দিনের ভ্যাপসা গরমে জ্বর, ঠাণ্ডা, ডায়রিয়াসহ গরমজনিত নানা রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে, এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন, নিয়ামতপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার প্রণব কুমার সাহা। নিয়ামতপুর উপজেলার মিজানুর রহমান বলেন, আষাঢ় শ্রাবণ মাস বর্ষাকাল। কিন্তু ভরা বর্ষাকালেও আমাদের মাঠে পানি নাই। এ সময় আমন ধান লাগানোর জন্য জমি প্রস্তুত করতে হয়। জমিতে পানি না থাকায় আমরা হালচাষ করতে পারছিনা। অটোভ্যান চালক মতি মিয়া বলেন, রোদের যে তাপ মনে হচ্ছে গায়ের চামড়া পুড়ে যাচ্ছে। যদিও ভ্যান পায়ে ঠেলতে হয়না তবুও রোদের কারণে রাস্তায় থাকাটাই কঠিন। এদিকে তাপদাহ বেড়ে যাওয়ায় কোমলপানীয়, জুস, আইসক্রিম, আখের রস ও শরবতের চাহিদা বেড়েছে।

Related Articles

Back to top button