sliderস্থানীয়

দৌলতপুরে ছাত্রলীগের হামলায় বিএনপি ৫ নেতাকর্মী আহত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা দিবসে শহীদদের স্মৃতিতে পুস্পস্তবক দিতে যাবার সময় মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির র‌্যালিতে ছাত্রলীগের অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের পাঁচ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদিকে, প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিএনপির র‌্যালি থেকে পাল্টা ধাওয়া দিলে ছাত্রলীগের হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম কুন্টু জানান, ‘স্বাধীনতা দিবসে সকাল সাড়ে ৮টায় ফুল দিতে গিয়ে আমরা জানতে পারি রমজানের মাস হওয়াতে ইউএনও বলেছেন সকাল ৯টায় ফুল দেয়া শুরু হবে। তখন আমরা র‌্যালি নিয়ে খাদ্য গুদামের কাছে পৌঁছালেই উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক রাজু আহম্মেদের নেতৃত্বে রতন, আকাশ, সাকিব, শিহাব, রাসেল, ডিপু, সুমনসহ ছাত্রলীগের ১৫ থেকে ২০ জনের ক্যাডার বাহিনী লাঠি, রড়, লোহার পাইপ দিয়ে আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এ সময় শ্রমিকদল নেতা মো: শাহমুদ্দিন, উপজেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক মো: শাহাদত, শ্রমিকদল নেতা টিপু সুলতানসহ পাঁচজন আহত হয়। এর মধ্যে মো: শাহমুদ্দিনের অবস্থা বেশি খারাপ হওয়াতে সাথে সাথে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তার অবস্থা দেখে পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।’

এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক রাজু আহম্মেদ বলেন, ‘বিএনপির লোকজন আমাদের সাথে গ্যাঞ্জাম করেছে এবং ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আমাদের ছাত্রলীগের ছেলেরাও আহত হয়েছে।’

এ হামলার ঘটনায় জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘মহান স্বাধীনতা দিবসে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর শহীদদের সম্মান জানাতেও আজ বাধা দেয়া হচ্ছে। আসলে এ সরকারের গুণ্ডা বাহিনীর অত্যাচার মাত্রা ছাড়িয়ে গেলে। এখনই এদের নিয়ন্ত্রণ করুন, নয়তো জনরোষে এরা পালাবার পথ পাবে না।’

তিনি আরো বলেন,‘আমার স্বাধীনতার প্রকৃত সুফল জনগণের কাছে পৌছানোর জন্যে আজ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে মাঠে আছি এবং জনগণকে সাথে নিয়েই সফল হবো। ইনশাআল্লাহ।’

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button