sliderশিরোনামস্থানীয়

ট্রাফিক পুলিশকে পেটানোর অভিযোগে নড়াইলের ভাইস চেয়ারম্যানসহ তিনজন কারাগারে

সংবাদদাতা, নড়ােইল : সরকারি দায়িত্ব পালনকালে নড়াইলে ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর মনিরুজ্জামানকে রোববার সন্ধ্যায় লাঠি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় ট্রাফিক সার্জেন্ট শাহ জালাল, এটিএসআই সরোয়ার আলম, বাসিউরসহ এক কনস্টেবলকে হামলাকারীরা আহত করে। কাগজপত্রবিহীন একটি মোটরসাইকেল ছেড়ে না দেওয়ার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রোববার রাতে নড়াইল সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
আহত পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় রোববার সন্ধ্যার দিকে শহরের পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকায় মোটরসাইকেলসহ অন্যান্য যানবাহনের বৈধ কাগজপত্র পরীক্ষাকালে কাগজপত্রবিহীন একটি মোটরসাইকেলসহ এক যুবককে আটক করে পুলিশ। বিষয়টি ওই যুবক মোবাইল ফোনে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ছাত্রলীগ নেতা তোফায়েল মাহমুদ তুফানকে জানালে তুফানসহ তার লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুলিশের সাথে ঔদ্ধত্বপূর্ণ আচরণ করেন।
এক পর্যায়ে তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ তার লোকজন কাঠ দিয়ে ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর মনিরুজ্জামানকে বেধড়ক মারধর করে।এ সময় ট্রাফিক সার্জেন্ট শাহ জালাল, এটিএসআই সরোয়ার আলম, কনস্টেবল নজরুল এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীদের হামলায় তারাও আহত হন।হামলাকারীরা পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানের মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে ও দুই হাতে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহত পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অন্যান্য আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: ইলিয়াস হোসেন জানান, এ ঘটনায় ৯ জনের নাম উল্লেখ করে রোববার রাতে সদর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।এজাহারে উল্লিখিত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button