sliderআইন আদালতশিরোনাম

জামিন পেলেন রাজবাড়ী মহিলা দল নেত্রী স্মৃতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেয়ার অভিযোগে করা মামলায় রাজবাড়ী মহিলা দল নেত্রী সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে (৩৫) জামিন দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

রোববার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

আদালতে স্মৃতির পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। সাথে ছিলেন বিএনপির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, আইনজীবী মনিরুজ্জামান আসাদ, মাকসুদ উল্লাহ, রোকনুজ্জামান সুজা প্রমুখ।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরসেদ।

আদেশের পর ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, যদি অন্য কোনো মামলা না থাকে তাহলে আপিল বিভাগ জামিন দেয়ায় তার কারামুক্তিতে বাধা নেই।

আইনজীবী মাকসুদ উল্লাহ জানান, হাইকোর্টের জামিন আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন খারিজ করেছেন আপিল বিভাগ। একইসাথে চেম্বার আদালতের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এর ফলে সোনিয়া আক্তার স্মৃতির মুক্তিতে বাধা নেই।

এর আগে, গত ২৮ নভেম্বর সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন শুনানি আগামী ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত মুলতবি করেন আপিল বিভাগ।

তার আগে গত ৩১ অক্টোবর বিচারপতি মো: আকরাম হোসেন চৌধুরী ও বিচারপতি শাহেদ নূরউদ্দিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে জামিন দেন। পরে রাষ্ট্রপক্ষ তার জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন। এই আবেদনের শুনানি নিয়ে ২ নভেম্বর হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। পাশাপাশি আবেদনটি নিয়মিত বেঞ্চে পাঠান। এর মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করেন।

উল্লেখ্য, ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলাটি করেন জেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সদস্য সচিব এবং মিজানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আরিফিন চৌধুরী। ওই মামলায় গত চার অক্টোবর দিবাগত রাত দেড়টার দিকে রাজবাড়ী শহরের সজ্জনকান্দা বেড়াডাঙ্গা তিন নম্বর সড়কের ভাড়া বাসা থেকে সোনিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

সোনিয়া আক্তার স্মৃতি রাজবাড়ী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও জেলা মহিলা দলের সদস্য। তিনি রাজবাড়ী পৌরসভার তিন নম্বর বেড়াডাঙ্গা এলাকার প্রবাসী মো: খোকনের স্ত্রী।

Related Articles

Back to top button