sliderস্থানীয়

জরাজীর্ণ টিনশেড ঘরে চিকিৎসক ও রোগী, সবার জন্য ঝুকিপূর্ণ

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) সংবাদদাতা: কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বাজারে ইউনিয়ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে চিকিৎসা কার্যক্রম। যেকোনো সময় ধ্বসে পরে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। প্রায় পঞ্চাশ বছরের পুরনো টিন শেড ঘরটিতে বৃষ্টিতে পানি পরে, বারান্দার চালা ও দেয়াল গুলো এতই নড়বড়ে কিন্তু মেরামত বা নতুন ভবন বরাদ্দের বাস্তব কোনো পদক্ষেপই দৃশ্যমান নয়।সমস্যা গুলো কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আক্তার, দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদ আল হাসান ও জেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশলী অবহিত থাকলেও তড়িৎ কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। কর্তৃপক্ষের বক্তব্য শুধু একটাই, সমস্যা অবহিত করা হয়েছে এবং চাহিদা পত্র দেওয়া হয়েছে। টিন শেড ঘরটির ইটের গাথনির পিলার গুলো বাঁশ পালা দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে, ময়লা কাঁদা ও বৃষ্টির পানি জমলে ডাক্তার বা রোগী গমনাগমন কঠিন। সামনের অবস্থায় মনে হবে না এটি একটি চিকিৎসা কেন্দ্র। আর বৃষ্টির পানিতে ঔষধ পত্র নষ্ট হওয়ার কথা না বললেই নয়। নিয়ম রয়েছে ইউনিয়ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে একজন এমবিবিএস ডাক্তার দায়িত্ব পালন করার কিন্তু এই পদ শূন্য, দায়িত্ব পালন করছেন একজন মেডিকেল এ্যাসিস্টেন্ট। গুরুত্বপূর্ণ জনপদ গৌরীপুর বাজারে ইউনিয়ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্র দ্রুত মেরামত, নতুন ভবন নির্মাণ, পর্যাপ্ত ঔষধ বরাদ্দ ও ডাক্তার পদায়ন করতে দাবি জানিয়েছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button