sliderরাজনীতিশিরোনাম

ভোট ছাড়া ক্ষমতা দখলের কারণে জনগণের প্রতি সরকারের কোন দায়বদ্ধতা নাই-এবি পার্টি

পতাকা ডেস্ক: ভোটারবিহীন একটি প্রতারণা মূলক নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের কারণে জনগণের প্রতি বর্তমান সরকারের কোন দায়বদ্ধতা নাই। সরকারের ছত্রছায়ায় একটি লুটেরা সিন্ডিকেট গোটা দেশের মানুষের অর্থ সম্পদ লুট করে ইউরোপ আমেরিকায় সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলেছে। আমরা এই লুটেরা সরকার চাইনা বলে মন্তব্য করেছেন এবি পার্টির গন ইফতারে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ।
এবি পার্টির যুগ্ম আহবায়ক বিএম নাজমুল হকের সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মাহমুদ আজাদের সঞ্চালনায় মাসব্যাপী গণ ইফতারের ১৮ তম দিনে আজ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু, জাতীয় পার্টির (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য নওয়াব আলী আব্বাস খান, জাগপার সহ সভাপতি রাশেদ প্রধান, কল্যাণ পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন পারভেজ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি জাকির হোসেন, বাংলাদেশ এলডিপির যুগ্ম মহাসচিব ফরিদ উদ্দিন, জাতীয় দলের ভাইস চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন শামীম, ইসলামি ঐক্যজোটের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আমিন, লেবার পার্টির যুগ্ম মহাসচিব শরিফুল ইসলাম সহ ১২ দলীয় জোট ও এবি পার্টির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।


এবি পার্টির সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু, আমরা বাংলাদেশকে নতুন করে সাজাতে চাই। উন্নত রাষ্ট্রের মানুষেরা যেমন অধিকার পায় আমরাও অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এই জন্য শুধু কথা বললে হবেনা, আমাদের সবাইকে কাজে হাত লাগাতে হবে। ভোটারবিহীন একটি প্রতারণা মূলক নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের কারণে জনগণের প্রতি সরকারের কোন দায়বদ্ধতা নাই। প্রতিদিন জিনিস পত্রের দাম বাড়ছে, মানুষ খাদ্য সংকটে ভুগছে, অথচ সরকারের টনক নড়ছে না। কাজেই আমাদের কাজ আমাদেরকেই করতে হবে। অভাবের তাড়নায় একজন মা তার বাচ্চাকে বাজারে আড়াই হাজার টাকায় বিক্রি করেছে। এই দুঃসময় আমরা চলতে দিতে পারিনা।
নওয়াব আলী আব্বাস খান বলেন, এই সরকার নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় যায়নি, ভারতের সহায়তায় ক্ষমতা দখল করেছে। এই দখলদার সরকার যখন মানুষের হাজার কোটি টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করছে, জিনিস পত্রের দাম বাড়িয়ে মানুষের একবেলার খাবার যোগার করাও কঠিন করে তুলেছে সেই সময় এবি পার্টি সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জন্য গন ইফতারের যে আয়োজন করেছে তা একটা বিরাট উদ্যোগ। এই দেশের মানুষ আজ স্বাধীন ভাবে ইফতার করতে পারছেনা, সেখানে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এবি পার্টির এই গণ ইফতার এই সকল বাধার বিরুদ্ধে একটি লাগাতার প্রতিবাদ। আমরা এবি পার্টির সাথে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এই জালিম সরকারের পতন আন্দোলন এগিয়ে নিবো ইনশাআল্লাহ।

জননেতা রাশেদ প্রধান বলেন, একটি নির্বাচন নামের তামাশার মাধ্যমে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় এসেই আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্যের উপর আঘাত করে চলেছে। ভারতের সহায়তায় ক্ষমতা দখলের কারণে আমাদের বর্ডারে আজ প্রতিদিন বিএসএফ গুলি করে মানুষ মারলেও সরকার কোন প্রতিবাদ করতে পারে না। প্রতিদিন জনগণের পকেটের টাকা লুট করে এই সরকার ইউরোপ আমেরিকায় পাচার করছে। আজ একজন মানুষের সারাদিনের আয় দিয়ে একবেলার খাবার কেনা কঠিন হয়ে গেছে। সেই সময় এবি পার্টি গরীব মানুষকে প্রতিদিন একটি ভালো মানের খাবার দিচ্ছে যা একটি খুবই ভালে উদ্যোগ।
তিনি উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা এবি পার্টির নাম ধরে দোয়া করবেন যেন আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে দেশ সেবার সুযোগ দেন।

গণ ইফতারে আরও উপস্থিত ছিলেন এবি পার্টির প্রচার সম্পাদক আনোয়ার সাদাত টুটুল, যুবপার্টির আহবায়ক এবিএম খালিদ হাসান, মহানগর উত্তরের আহবায়ক আলতাফ হোসাইন, সদস্যসচিব সেলিম খান, মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম সদস্যসচিব সফিউল বাসার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হালিম নান্নু, যুবপার্টি মহানগর দক্ষিণের আহবায়ক তোফাজ্জল হোসেন রমিজ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মশিউর রহমান মিলু, রিপন মাহমুদ, আমেনা বেগম, সুমাইয়া শারমিন ফারহানা, ফেরদৌসী আক্তার অপি, এবি পার্টি পল্টন থানা আহবায়ক আব্দুল কাদের মুন্সি, সদস্যসচিব রনি মোল্লা, যাত্রাবাড়ী থানা সমন্বয়ক সিএমএইচ আরিফ সহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button