sliderস্থানীয়

চিরিরবন্দরে বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় নিহত ৪,আহত ৬

পি কে রায়,চিরিরবন্দর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে উপজেলার রানীরবন্দরে বিআরটিসি বাসের ধাঁক্কায় দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী চার্জার ভ্যানের ৪জন নিহত ৬জন আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৬ফেব্রুয়ারি) সকাল আনুমানিক ৭ঘটিকার সময় দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কের রানীরবন্দর বাজারে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতরা হলেন, কক্সবাজার জেলার চাকমা সম্প্রদায়ের দুইজন মধু বিক্রেতা মংসু চাকমার ছেলে লতা ইয়া চাকমা (৫২), এসং চাকমার ছেলে সাইঙ্হো চাকমা (৪৫), অপর দুইজন হলেন, দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার গোয়ালডিহি ইউনিয়নের বটতলী গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুল মজিদ (৫০) ও একই ইউনিয়নের প্লান বাজার এলাকার মোঃ নজু ইসলাম (৪০)।

দুর্ঘটনার পর থেকেই স্থানীয়রা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এতে মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয়রা স্পিডব্রেকার ও স্থায়ীভাবে ট্রাফিক ব্যবস্থা চালুর দাবিতে সড়ক অবরোধ করে রাখে।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সকাল ১০ঘটিকার সময় দিনাজপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ কে এম শরীফুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপি মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে স্থানীদের দাবী পূরণের আশ্বাস দিলে আবারো যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এবিষয়ে চিরিরবন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসনাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, “সকালে দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী বিআরটিসি দ্রুতগতির একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব- ১৫-৫৪৯৩) রানীরবন্দর বাজারে পৌঁছালে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী চার্জারভ্যানকে চাঁপা দেয়। এতে চার্জারভ্যানের ৪জন যাত্রী ঘটনাস্থলে নিহত হয় এবং সামনে দাঁড়িয়ে থাকা আরও একটি ভ্যান ওই বাসের ধাঁক্কায় দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে আরও ৬/৭জন আহত হন।

দুর্ঘটনার খবর পেঁয়ে দশমাইল হাইওয়ে থানা ও চিরিরবন্দর ফাঁয়ার সার্ভিস উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button