sliderস্থানীয়

গোবিন্দগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রাণ গেল গৃহবধূর

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সিটি জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টারে সিজার পরবর্তী ব্লাড কন্ট্রোল করতে না পারায় (ভুল চিকিৎসায়) বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রাণ হারালো গৃহবধূ মুনমুন (২৬)। মুনমুন উপজেলার ফুলবাড়ী ইউনিয়নের কানিপাড়া গ্রামের আ. আজাদের স্ত্রী ও পৌরসভার খলসী গ্রামের মিলনের কন্যা।
শুক্রবার (৫ আগস্ট) সকালে ডেলিভারির জন্য সিটিতে ভর্তি হয় মুনমুন। বেলা ১১টায় হাসপাতার কর্তৃপক্ষ অনকলে পলাশবাড়ী থেকে জনৈক মহিলা সার্জন এনে সিজার করায়। সিজার পরবর্তী রোগীর ব্লাড বন্ধ না হওয়ায় বিপাকে পড়ে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও রোগীর স্বজনরা। এসময় দ্রুত রোগীকে রেফার্ড না করে নিজেরাই চেষ্টা করার একপর্যায়ে অবস্থা বেগতিক দেখে বিকাল প্রায় ৪টার দিকে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে রোগী মৃত্যুবরণ করে।
মুনমুনের বাবা জানান, প্রায় ১১ বছর আগে মুনমুনের বিয়ে হয়। তার একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। আজ সিজারে তার একটি কন্যা সন্তান জন্ম নিয়েছে। সে সুস্থ্য আছে। কিন্তু সিজার পরবর্তী ব্লাড বন্ধ না হওয়ায়, ভুল চিকিৎসায় গুরুতর অবস্থা হলে বিকালে আমার মেয়েকে বগুড়ায় শহীদ জিয়া মেডিকেলে ভর্তি করালে সন্ধ্যা ৭টার দিকে মুনমুন মারা যায়।
এদিকে রাত ১১টার দিকে মুনমুনের মরদেহ সিটি জেনারেল হাসপাতালের সামনে আনলে শোকের ছায়া নেমে আসে। রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের আহাজারি করতে দেখা যায়। এসময় ওই হাসপাতালের কোন কর্তৃপক্ষ বা কতর্ব্যরত ডাক্তারের দেখা পাওয়া যায়নি। তাদের ব্যবহৃত হটলাইন ও সাইনবোর্ডে ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জাফরিন জাহেদ জিতি আমাদের সময়কে বলেন, এ ঘটনায় তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Back to top button