sliderআন্তর্জাতিক সংবাদশিরোনাম

গণবিক্ষোভের মুখে মিনিয়াপোলিস পুলিশ ডিপার্টমেন্ট ‘বিলুপ্তির’ ঘোষণা

শ্বেতাঙ্গ পুলিশদের হাতে জর্জ ফ্লয়েড মারা যাওয়ার পর পৃথিবীজুড়ে শুরু হওয়া আন্দোলনের প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এমপিডি) ‘বিলুপ্ত’ হতে যাচ্ছে।
মিনিয়াপোলিস স্টার ট্রিবিউন জানিয়েছে, শহর পুলিশের ৯ জন কাউন্সিল মেম্বার রবিবার আন্দোলনস্থল থেকে বিভাগের কার্যক্রম শেষ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রবিবার বলেন, ‘আমরা মিনিয়াপোলিস পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এমপিডি) শেষ করার প্রক্রিয়া শুরু করবো।’
‘আমরা বুঝতে পারছি পুলিশমুক্ত ভবিষ্যৎ কী হবে তার সব প্রশ্নের উত্তর আমাদের কাছে নেই। কিন্তু সাধারণ মানুষ সেটি চান,’ লিখিত বক্তব্যে কর্মকর্তারা বলেন, ‘আপনাদের জন্য কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আনা যায় সেটি অলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’
পুলিশের পক্ষ থেকে পুরো ডিপার্টমেন্ট ভেঙে দেয়ার কথা বলা হলেও স্থানীয় মেয়র একদিন আগে জানান, সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হবে না। শনিবার তিনিও আন্দোলনস্থল থেকে এই কথা বলেন।
তবে পুলিশের কাউন্সিল সদস্যরা বিভাগ ভেঙে দেয়ার বিষয়ে একমত, ‘এটা আমাদের প্রতিশ্রুতি। জননিরাপত্তা বিষয়ক পদ্ধতির প্রতিক্রিয়া এটি।’
কর্মকর্তারা বলছেন, বিভাগ ভেঙে দিতে কয়েক সপ্তাহ অথবা মাসের ভেতর বাজেট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অন্তর্বর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।
আমেরিকায় গত ২৫ মে ৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েড নামের কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে পুলিশ হত্যা করার পর আন্দোলন শুরু হয়। করোনাকে উপেক্ষা করে সেই আন্দোলন দেশে-দেশ ছড়িয়ে পড়ছে।
ফ্লয়েড জাল নোট ব্যবহার করে সিগারেট কিনছিলেন কি না পুলিশ তা তদন্ত করতে গিয়ে তাকে আটক করে।
এক ভিডিওতে দেখা যায় একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করছেন এবং সেসময় ফ্লয়েডকে মাটিতে ফেলে বেশ কয়েক মিনিট ধরে তার হাঁটু দিয়ে গলা চেপে ধরে আছেন। ফ্লয়েড বারবার তাকে বলছেন, তিনি নিশ্বাস নিতে পারছেন না।
আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায় আরও কয়েকজন পুলিশ তার গলায় হাঁটুচেপে ধরেছেন।
আমেরিকার পাশাপাশি গত বুধবার থেকে অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস এবং ব্রিটেনে বিক্ষোভ শুরু হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button