sliderরাজনীতিশিরোনাম

কোটা প্রথা বাতিলের দাবিতে “জন জোটের” সমাবেশ

আজ ১২/০৬/ ২০২৪ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দুপুর ১২ টায় জন জোটের একটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় । জন জোটের প্রধান সমন্বয়ক ফার্মাসিস্ট মুজাম্মেল মিয়াজীর সভাপতিত্বে এবং ছাত্র জন জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক তারিক আজিজের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ছাত্র জন জোটের প্রধান সমন্বয়ক মোঃ মোশাররফ হোসেন, যুব জন জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক হাসান আলী স্বপন, গণ ফোরামের তথ্য ও মিডিয়া বিষয়ক সমন্বয়ক মাহমুদউল্লাহ মধু, জন জোটের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মোঃ হারুন-অর রশিদ ও সাংবাদিক খন্দকার জসিমউদদীন ।

ছাত্র জন জোটের উপদেষ্টা মোঃ মোশাররফ হোসেন বলেন, এই সরকার কথা দিয়ে কথা রাখেনা । ২০১৮ সালে কোটা বাতিল করে আবার সেই কোটা অপকৌশলে হাইকোর্টের মাধ্যমে ফিরিয়ে এনে ১৮ কোটি জনগণকে ধোকা দিয়েছে । এই সরকার একটি অবৈধ সরকার ।

যুব জন জোটের কেন্দ্রীয় নেতা হাসান আলী স্বপন বলেন, যে সরকার যখনই বাজেট দেয় সেই বাজেটই জন বিরোধী বাজেট হয় । সরকার কখনই জনগণের অনুকূল বাজেট করতে পারেনা । সরকার ব্যর্থ ।

গণ ফোরামের তথ্য ও মিডিয়া বিষয়ক সম্পাদক বলেন, ২০১৮ সালে আমরা কোটা সংস্কার চেয়েছিলাম তখন সরকার একতরফা কোটা বাতিল করেছে । এটা ছিল সরকারের অপকৌশল । সেটা এখন প্রমান হয়েছে ।

আমরা অবৈধ সরকারকে হুশিয়ার দিয়ে বলতে চাই কোন অপকৌশল কোটা পুনর্বহাল করলে এর জবাব ছাত্র-জনতা রাজপথে দিব ইনশাআল্লাহ ।

জন জোটের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা সাংবাদিক খন্দকার জসিমউদদীন বলেন, জন জোট যে যৌক্তিক দাবি সমূহ উপস্থাপন করেছে তাহা সরকারকে মেনে নেওয়া উচিত । ছাত্র— জনতার বিপক্ষে হলে তাহা সরকারের জন্য ভাল হবে না ।

জন জোটের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মোঃ হারুন-অর-রশিদ বলেন, ছাত্র সমাজের যৌক্তিক দাবি কোটা বাতিল না করলে এবং চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি না করলে সেটা হবে রাষ্ট্রের জন্য ক্ষতিকর । মেধার মূল্যায়নের জন্য অবশ্যই কোটা প্রথা বাতিল করা সময়ের দাবি ।

জন জোটের প্রধান সমন্বয়ক ও প্রোগ্রামের সভাপতি ফার্মাসিস্ট মুজাম্মেল মিয়াজী বলেন, আমরা দেখেছি এই সরকার বরাবরই ছাত্র জনতার সাথে প্রতারণা করে আসছে যার প্রমাণ কোটা পুনর্বহাল করা । লক্ষ লক্ষ ছাত্রদের আন্দোলনের রোষানলে পড়ে এবং ক্ষমতা হারানোর ভয়ে কোটা বাতিল করল এবং অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে কোটা পুনর্বহাল করল যাহা প্রমাণ করে সরকার একটি মিথ্যাবাদী সরকার ।

দীর্ঘ দিন থেকে চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি আন্দোলন চলছে। সরকার বলেছে ক্ষমতায় আসলে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি করবে কিন্তু সেটা নিয়ে সরকার বড় ধরনের প্রতারণা ও প্রহসন করছে৷।

১০ টাকায় চাল ও ঘরে ঘরে চাকরি দিবে বলে ক্ষমতায় এসেছিল আর এখন আমরা দেখি চালের দাম ৮০ টাকা আর ঘরে ঘরে বেকার । সরকারের সকল বাজেটই হয় জনবিরোধী বাজেট ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জন জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক মাহবুব শামিম, সহ সমন্বয়ক মোঃ নেওয়াজ এবং নারী বিষয়ক সমন্বয়ক রেশমা আক্তার, যুব বিষয়ক সমন্বয়ক সাফিউল ইসলাম সহ কেন্দ্রীয় ছাত্র যুব শ্রমিক নেতৃত্ববৃন্দ ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button