sliderস্থানীয়

কেরানীগঞ্জে জাপানী ক্যালিওগ্রাফির ক্যারিক্যাচার শিখলো শিক্ষার্থীরা

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি: গভীর আগ্রহে ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেনীর এক ঝাঁক ছাত্রী সুশৃঙ্খলভাবে মেঝেতে বসে ছিল অধীর অপেক্ষায়। কারন জীবনে প্রথমবারের মতো জাপানি ক্যালিওগ্রাফি শিখবে তারা।

অতিথিদের আগমনের পর মিউজিকের তালে তালে বিশাল এক রংতুলি দিয়ে জাপানি ক্যালিগ্রাফি শিল্পী সাতোকো আজুমা যখন তার ক্যালিওগ্রাফির ক্যারিকাচার শুরু করলেন তখন শিক্ষার্থী এবং উপস্থিতিদের মধ্যে চোখে পড়ে ব্যাপক উচ্ছাস। ক্যালিওগ্রাফি শেষে হলরুমে দেখা মেলে আনন্দের ঝিলিক।

আজ শুক্রবার সকালে ঢাকার কেরাণীগঞ্জে জিঞ্জিরায় হামিদুর রহমান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও জাপান দূতাবাসের যৌথ আয়োজনে এই ক্যালিগ্রাফি কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

ক্যালিওগ্রাফি হলো বিভিন্ন ভাষায় হাতে লেখা চারুলিপি, হস্তলিপিশিল্প বা বিশেষ নকশা। এই শিল্পে মোটা কলম বা ব্রাশের সাহায্যে অক্ষরের নকশা করা হয়। এর মাধ্যমে একাগ্রতার চর্চারও সুযোগ রয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং জাপানের রাষ্ট্রদূত ইয়ামা কিমিনোরি একসঙ্গে পৃথক ব্যানারে ক্যালিওগ্রাফি করেন, তবে রাষ্ট্রদূতের আগেই ক্যালিওগ্রাফি শেষ করে সবাইকে তাক লাগান প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। জাপানি ভাষায় তার ক্যালিওগ্রাফির বাংলা অর্থ ছিলো বন্ধুত্ব।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য বিনিময়ের মাধ্যমে বাঙ্গালি সংস্কৃতি আরও ঋদ্ধ হবে। বাঙ্গালি সংস্কৃতির ঐতিহ্যের সাথে জাপানীজ কৃষ্টি, শিক্ষাদীক্ষা চর্চা ও অনুশীলন করতে পারলে আমাদের সংস্কৃতি হবে আরও মার্জিত। সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং সাংস্কৃতির উপাদানসমূহের প্রদর্শনী বাড়ানো গেলে সাংস্কৃতিক সম্পর্কও জোরদার হয়।

তিনি আরো বলেন স্কুল থেকেই শিক্ষার্থীদের এ ধরনের কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে যাতে তাদের স্বপ্নটা আরও বড় হয়,এই কর্মসুচির মাধ্যমে জাপান ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গভীরতর হবে, সাংস্কৃতিক ও শৈল্পিক অভিব্যক্তি বিনিময় বৃদ্ধি পাবে তাছাড়া অংশগ্রহণকারীরা এই কর্মসূচির মাধ্যমে জাপানি ক্যালিগ্রাফির সমৃদ্ধ ঐতিহ্য সম্পর্কে বিশদভাবে জানতে পারবে,ক্যালিগ্রাফি করতে একাগ্রতা ও স্থির হতে হয় , যার মাধ্যমে নিজেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে, ক্যালিগ্রাফি কর্মশালার মাধ্যমে এই গুণটাও অংশগ্রহণকারীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়বে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইয়ামা কিমিনোরি বলেন, সাংস্কৃতিক কার্যক্রম বিনিময়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের সাথে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার হবে।

প্রতিটি দলে ২০ জন করে মোট প্রায় ১০০জন শিক্ষার্থী দিনব্যাপী হাতে কলমে এ ক্যালিওগ্রাফি শেখার কর্মশালায় অংশ নেয়।

কর্মশালাটির মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীরা জাপানি ক্যালিগ্রাফির রাজ্যে প্রবেশ করার সুযোগ তৈরি হলো বলে জানান আয়োজকরা।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button