sliderস্থানীয়

কুষ্টিয়ায় যুবকের ৮ টুকরো মরদেহ উদ্ধার, আটক ৫

মো: লিটন উজ্জামান,কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় মিলন হোসেন (২৪) নামে এক যুবকের ৮ টুকরো মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (৩ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার হরিপুর চর থেকে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল রানা।

নিহত মিলন হোসেন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার পূর্ব বাহির মাদি এলাকার মাওলা বক্সের ছেলে। তিনি পড়ালেখার পাশাপাশি আউট সোর্সিংয়ের কাজ করত। গত ১০ মাস আগে তিনি বিয়ে করেছেন। স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং এলাকায় ঈদগাহের পাশে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা বলছেন, কী কারণে মিলনকে হত্যা করা হয়েছে। সে বিষয়ে আমরা কিছু জানি না। সকালে শুনতে পারি, মিলনের ৮ টুকরো করা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হোক।

মিলনের স্ত্রী মিমি খাতুন বলেন, হাউজিং এলাকার সজল মিলনকে কল করে ডাকে। তার সঙ্গে দেখা করে বসায় এসে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আবার বের হয়ে যায়। পরে সে নিখোঁজ ছিল। ওই দিনই কুষ্টিয়া মডেল থানায় জিডি করি। পরেরদিন দুপুর পর্যন্ত আমার স্বামীর মোবাইল নম্বর খোলা ছিল। কিন্তু পুলিশ গুরুত্ব দেয়নি, গুরুত্ব দিলে আমার স্বামীকে জীবিত উদ্ধার করতে পারতো। আজ সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আমার স্বামীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

কু‌ষ্টিয়ার অতিরিক্ত পু‌লিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) পলাশ কা‌ন্তি নাথ বলেন, বুধবার (৩১ জানুয়া‌রি) সকালে মিলন বা‌ড়ি থেকে ‌বের হয়ে নি‌খোঁজ হন। ওই দিন সন্ধ্যায় তার স্ত্রী মিমি খাতুন কু‌ষ্টিয়া মডেল থানায় জি‌ডি করেন। জি‌ডির পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করে পু‌লিশ।

তিনি আরো বলেন, মোবাইলফো‌নের এক‌টি কল লি‌স্টের সূত্র ধ‌রে প্রথ‌মে মিলনের এক বন্ধু‌কে আটক করা হয়। তার স্বীকা‌রো‌ক্তি‌তে জানা যায়, আরেক বন্ধু স‌জিবের নেতৃত্বে মিলন‌কে হত্যা করা হ‌য়ে‌ছে। পরবর্তী‌তে শুক্রবার বি‌কা‌লে অভিযান চা‌লি‌য়ে স‌জিবসহ আরো চারজন‌কে আটক করা হয়।

পলাশ কা‌ন্তি নাথ বলেন, জিজ্ঞাসাবা‌দে তারা মিলন‌কে হত্যা ক‌রে তার লাশ টুক‌রা করে নদীর চ‌রে পুঁতে রাখার বিষয়‌টি স্বীকার ক‌রেন। এরপর শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দি‌কে তা‌দেরকে নি‌য়ে হাটশ হ‌রিপুর ইউনিয়নের কা‌ন্তিনগর বোয়ালদহ পদ্মা নদীর চরে অভিযানে যায় পু‌লিশ। রাতভর অভিযান চা‌লি‌য়ে নদীর চ‌রের ছয়টি স্থান থে‌কে মিল‌নের খ‌ণ্ডিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল রানা বলেন, টুকরো টুকরো করা মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button