sliderস্থানীয়

কবিরাজ বাড়ী খাল পরিদর্শনে এলজিইডির প্রকল্প উপ পরিচালক

মোঃ শাহাদাত হোসেন মনু,ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির রাজাপুরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত কবিরাজ বাড়ী খাল। দখল ও দূষনের ফলে বর্তমানে মৃত প্রায়। খালটি খনন করে পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে আনার লক্ষে সরেজমিন পরিদর্শন করলেন এলজিইডির পুকুর ও খাল উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্প’র প্রকল্প উপ পরিচালক এনায়েত কবির।
সোমবার দুপুরে টিএন্ডটি সড়কের জেলখানার বিপরীত দিকের দখল হওয়া খালটি তিনি পরিদর্শন করেন।
বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই রাজাপুর বাজারের দক্ষিণ মাথা থেকে বাইপাস হয়ে আবু মুছা সোহাগের বাড়ির পাশ দিয়ে পোদ্দার হাওলা হয়ে দক্ষিণ রাজাপুর হাজি বাড়ি পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটারের এই খালটি রাজাপুর সদরের পানি প্রবাহিত হবার একমাত্র পথ। এই কবিরাজবাড়ী খাল দখলদারদের কাছ থেকে উদ্ধার ও খনন করে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার জন্য স্থানীয় সচেতন যুবকরা আন্দোলন করে আসছিল। আন্দোলনের অংশ হিসিবি খাল উদ্ধার ও খননের বিষয়ে তারা উপজেলা পরিষদ চত্তরে বেশ কয়েকবার মানববন্ধনও করে। পরে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার কাছে এবং ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মহোদয় বরাবর স্বারক লিপি প্রদান করে স্থানীয় খাল উদ্ধার কমিটি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার সরেজমিন কবিরাজবাড়ী খাল পরিদর্শন করেন এলজিইডির উর্ধ্বতন এই কর্মকর্তা।
পরিদর্শন শেষে বিষ্ময় প্রকাশ করে এনায়েত কবির বলেন, খালের বর্তমান যে অবস্থা তাতে আগামী দু এক বছরের মধ্যে এই খালের কোন অস্তিত্বই থাকবে না। তাই আমরা খুব শিঘ্রই এই খাল খননের বিষয়ে পদক্ষেপ নিব। এসএ নকশা অনুযায়ী খালের সীমানা নির্ধারণ করার জন্য উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার(ভূমি)’র সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন,এলজিইডির সুপারভিশন এন্ড মনিটরিং কর্মকর্তা মো.মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী প্রকৌশলী রোমান ভুঁইয়া, রাজাপুর উপজেলা প্রকৌশলী অভিজিত মজুমদার, প্রকল্পের উপ সহকারী প্রকৌশলী শোভন হালদারসহ খাল উদ্ধার কমিটির সদস্য সাংবাদিক মঈনুল হক লিপু, দুলাল তেওয়ারী ও রাজীব ফরাজী প্রমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button