একান্ত পারিবারিক অনুষ্ঠানেই এনগেজমেন্ট রহমান কন্যার

খানিকটা আটপৌরে ভাবেই এনগেজমেন্ট সেরে ফেললেন এ আর রহমানের মেয়ে খাদিজা রহমান। নিতান্ত পারিবারিক এক অনুষ্ঠানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল রহমান কন্যার নতুন জীবনের এই শুরুয়াত।শীত পড়লেই শুরু হয়ে যায় বিয়ের মরসুম। প্রখ্যাত গায়ক তথা অস্কার জয়ী সুরকার এ আর রহমানের বাড়িতেও এবার তারই প্রতীক্ষা।
খাদিজার হবু স্বামীর নাম রিয়াজদিন শেখ মোহম্মদ, যিনি পেশায় একজন অডিও ইঞ্জিনিয়ার। এনগেজমেন্টের অনুষ্ঠান থেকে নিজের একটি ছবি শেয়ার করেছেন খাদিজা। গোলাপি এবং রুপালি রঙের একটি শাড়িতে দেখা গেল খাদিজাকে। মুখ ঢাকা পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং গোলাপি মাস্ক-এ। তবে এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠানে জীবনসঙ্গী হতে চলা রিয়াজের কোনো ছবি খাদিজা দেননি। তার বদলে দিয়েছেন রিয়াজের একটি সাদাকালো ছবি।
খাদিজা জানিয়েছেন গত ২৯ ডিসেম্বর রিয়াজের সাথে তার বাগদান হয়েছে। দুই পরিবারের আত্মীয় এবং ঘনিষ্ট বন্ধুরাই শুধু উপস্থিত ছিলেন এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠানে। তবে খতিজার এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ার দেয়ালে আসা মাত্র সাধারণ মানুষ থেকে বলিউডের সেলেবরা সকলেই শুভেচ্ছায় ভরিয়ে দিয়েছেন খাদিজাকে।
নিজের বোরখা পড়া নিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে লেখিকা তসলিমা নাসরিনকেও যোগ্য জবাব দেন খাদিজা। তসলিমা বলেছিলেন খতিজা যে ভাবে বোরখা পড়েন, তা দেখে তাঁর দমবন্ধ হয়ে আসে।
এ আর রহমান এবং সায়রাবানুর কন্যা বড় মেয়ে খাদিজার বেড়ে ওঠা সুরের পরিমন্ডলেই। ১৯৯৬ সালের ২৮ জুলাই তার জন্ম। লেখাপড়া শেষ করে প্রত্যাশিতভাবেই গানকেই পেশা হিসেবে নেন। মাত্র ১৪ বছর বয়সে পেশাদার শিল্পী হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ। ২০১০ সালে বাবা রহমানের সুরে রজনীকান্ত এবং ঐশ্বর্য রাইয়ের ছবি এন্থিরানের জন্য, এসপি বালসুব্রমনিয়মের সুরে গান গান খতিজা। যা সমালোচকদের প্রশংসাও পায়।
সূত্র : পুবের কলম

Check Also

নবাবগঞ্জে শীতার্তদের পাশে প্রবাসী কল্যাণ ফান্ড

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি : ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় দুস্থ, অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ …