sliderরাজনীতিশিরোনাম

একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে দেশকে গণতান্ত্রিক বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করবেন না-এবি পার্টি

পতাকা ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আমার বাংলাদেশ পার্টির নেতারা বলেছেন, প্রহসনের নির্বাচন বন্ধ করুন। একতরফা একটি নির্বাচন করে দেশকে গণতান্ত্রিক বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিবেন না।

প্রহসনের নির্বাচন বর্জনে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রচারপত্র বিতরণ কালে এবি পার্টি নেতৃবৃন্দ একথা বলেন।
আজ বিকাল ৪ টায় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয় সংলগ্ন বিজয় একাত্তর চত্বর থেকে বিলি শুরু করে কাকরাইল, পল্টন ও সেগুনবাগিচা এলাকায় প্রচারপত্র বিলি করে দলটির নেতাকর্মীরা। প্রচারপত্র বিলির শুরুতেই সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহবায়ক প্রফেসর ডাঃ মেজর (অবঃ) আব্দুল ওহাব মিনার ও অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম।

মেজর অবঃ মিনার বলেন, একটি একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামীলীগ আবার লুটপাট আর নির্যাতনের লাইসেন্স পাঁচ বছরের জন্য রিনিউ করার চক্রান্ত করছে। আমি আর ডামির এই নির্বাচন জনগণ মেনে নেবেনা। গতকাল নির্বাচন কমিশনাররাই বলেছেন এই নির্বাচনের ফলে দেশ কি ধরনের সমস্যায় পড়তে যাচ্ছে। একজন ব্যক্তির ক্ষমতার লোভ আজ পুরো দেশের গণতন্ত্র ও অর্থনীতিকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে।
তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, সাজানো মামলায় বিরোধী রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে জেলে পুরেছেন। দিনে রাতে কোর্ট বসিয়ে সাজা দেয়া হচ্ছে। আজ নতুন করে দেশের একমাত্র নোবেলজয়ী ব্যক্তি ড. ইউনুসকে সাজা দিয়েছেন। এভাবে শেষ রক্ষা করতে পারবেন না। এই প্রহসনের নির্বাচন বন্ধ করুন। একতরফা একটি নির্বাচন করে দেশকে গণতান্ত্রিক বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিবেন না।


অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেন, ৭৪ সালে দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করে বাকশাল কায়েম করা হয়েছিল, আজ নতুন করে দ্বিতীয় বাকশালের সুচনা হয়েছে। বাকশালে যেমন সকল রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করা হয়েছিলো আজ সকল দলকে নির্বাচনের বাইরে রেখে আওয়ামীলীগ, তার ডামি, জোট আর তল্পিবাহক কিছু দালালের দলকে দিয়ে একই কায়দায় দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করা হচ্ছে। নির্বাচনের নামে এই তামাশায় জনগন অংশ নেবেনা, মানুষ এই ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করবে ইনশাআল্লাহ।

প্রচারপত্র বিলিতে আরো উপস্থিত ছিলেন এবি পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহবায়ক বিএম নাজমুল হক, যুগ্ম সদস্যসচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, দফতর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, প্রচার সম্পাদক আনোয়ার সাদাত টুটুল, যুবপার্টির আহবায়ক এবিএম খালিদ হাসান, সহকারী সদস্যসচিব শাহ আব্দুর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল হালিম খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হালিম নান্নু, আমিরুল ইসলাম নুর, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সেলিম খান, রিপন মাহমুদ, মশিউর রহমান মিলু, স্মরন চৌধুরী, আসমা আক্তার, ছাত্রনেতা হাসিবুর রহমান খান সহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button