sliderআন্তর্জাতিক সংবাদশিরোনাম

ইংল্যান্ডে প্রতি ৫০ জনে একজন করোনায় আক্রান্ত

মঙ্গলবার ইংল্যান্ডে নতুন করে যখন লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে, তখন নতুন আরেকটি তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি করোনা ভাইরাসে সেখানে প্রতি ৫০ জনের মধ্যে একজন আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে কর্মকর্তারা সতর্কতা দিয়েছেন, আগামী শীতের মৌসুম পর্যন্ত প্রাত্যহিক জীবনে কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করার প্রয়োজন হতে পারে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন নিউ ইয়র্ক টাইমস। এতে আরো বলা হয়, এরই মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, উচ্চ মাত্রায় সংক্রমণযোগ্য করোনা ভাইরাসের নতুন ভেরিয়েন্টকে প্রতিরোধ করতে ব্যাপক হারে টিকাদান কর্মসূচি বাড়াতে সচেষ্ট সরকার। ২রা জানুয়ারি সমাপ্ত সপ্তাহে ইংল্যান্ডে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তের এই সংখ্যা ইংল্যান্ডের মোট জনসংখ্যার শতকরা ২ ভাগ।
অর্থাৎ প্রতি ৫০ জন মানুষের মধ্যে একজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ অবস্থায় টিকা বিতরণে সময়ের বিরুদ্ধে লড়াই করছে বৃটেন। সেখানে প্রথমবারের মতো যখন একদিনে ৬০ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, সেদিনই সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বরিস জনসন। এ সময় তার পাশে উপস্থিত ছিলেন ইংল্যান্ডের প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা প্রফেসর ক্রিস হুইটি। তিনি বলেছেন, বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে মারা যাচ্ছেন ৫৩০ জন। এই সংখ্যা বাড়তে পারে। যদি জনগণ লকডাউন ঠিকঠাকমতো পালন না করে, তারা যদি ঘরে অবস্থান না করে, তাহলে এই সংখ্যা অনেক বেশি হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। এ সময় তিনি সতর্ক করেন এই বলে যে, বৃটিশ নাগরিকদের ভবিষ্যতে আরো কিছু বিধিনিষেধের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে বরিস জনসন বলেছেন, বৃটেনে এরই মধ্যে ১৩ লাখ মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। তিনি আশা করেন, সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা মানুষ- বিশেষ করে প্রবীণরা সহ এমন মানুষের সংখ্যা হতে পারে এক কোটি ৩০ লাখ। তাদেরকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে টিকা দিয়ে সুরক্ষিত রাখা যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
নিউইয়র্ক টাইমস

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button